Dhaka ০৯:৫৬ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৬ এপ্রিল ২০২৪, ৩ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বহরপুরে  শ্রী শ্রী তারকব্রক্ষ্ম মহানাম যজ্ঞানুষ্ঠানের শুরু

স্টাফ রিপোর্টার
  • প্রকাশের সময় : ০৯:৩১:০৯ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
  • / ১০৪৯ জন সংবাদটি পড়েছেন

রাজবাড়ী জেলা, বালিয়াকান্দি উপজেলা, বহরপুর ইউনিয়নের, বহরপুর সার্বজনীন শ্রী শ্রী মহেশ্বরী অঙ্গন প্রাঙ্গণে ২৪ প্রহরব‍্যাপী অখন্ড শ্রী শ্রী তারকব্রক্ষ্ম মহানাম যজ্ঞানুষ্ঠানের শুরু হয়েছে। ১৯ ফেব্রুয়ারি থেকে শুরু হয়ে এই মহানাম যজ্ঞানুষ্ঠান চলবে বুধবার ২৩ ফেব্রুয়ারি অরুণ্যেউদয় পযর্ন্ত। সোমবার (১৯ ফেব্রুয়ারি ) বিকালে গীতা ও শ্রীমতম্ভগবত গীতা পাঠ ও আলোচনা সভার মধ‍্যদিয়ে মহানাম যজ্ঞানুষ্ঠানের শুভ সুচনা হয়। এতে পাঠক ছিলেন মাগুরার মহারাজ শ্রী চিন্ময়ানন্দ দাস ব্রক্ষ্মচারী ( চঞ্চল গোস্বামী), শ্রী স্বপনদেব ভৌমিক, সঞ্জীব গোস্বামী বহরপুর। মঙ্গলবার (২০ ফেব্রুয়ারি) অরুণ্যেদয় থেকে শুরু হবে শ্রী শ্রী তারকব্রক্ষ্ম মহাসংকির্তণ। মঙ্গলবার সকাল হতে শুক্রবার (২৩ ফেব্রুয়ারি) সকাল পর্যন্ত চলবে ২৪ প্রহর ব‍্যাপী শ্রী শ্রী তারকব্রক্ষ্ম মহানাম যজ্ঞানুষ্ঠান। শুক্রবার (২৩ ফেব্রুয়ারি) দুপুর থেকে শ্রীমনমহাপ্রভূর ভোগবাস অনুষ্ঠান ও ভক্তগণের মাঝে মহাপ্রসাদ বিতরণের করছেন আয়োজকবৃন্দ। রাজবাড়ীর বালিয়াকান্দি উপজেলার বহরপুর ইউনিয়নের বহরপুর শ্রী শ্রী মহেশ্বরী অঙ্গনে আয়োজিত ২৪ প্রহরব‍্যাপী মহানাম যজ্ঞানুষ্ঠান তত্ত্বাবধান, পরিচালনা, পৃষ্ঠপোষকতা ও সার্বিকভাবে সহযোগীতা করেন বহরপুর বাজার ব‍্যবসায়ী এবং অত্র এলাকার গৌর ভক্তবৃন্দ। মহানামযজ্ঞানুষ্ঠানে যারা মহানাম সুধা পরিবেশন করবেন তাদের মধ‍্যে রয়েছে, কুষ্টিয়ার শচীনন্দন সম্প্রদায়ের সুমন চক্রবর্তী, গোপালগঞ্জের মা আনন্দময়ী সম্প্রদায়ের অমিতোষ মন্ডল, সিরাজগঞ্জের ভুবন মঙ্গল সম্প্রদায়ের বনবাসী সরকার, খুলনার শিশু কুঞ্জ সম্প্রদায়ের কৃষ্ণা রানী সরকার, ঝিনাইদহের গৌর হরি সম্প্রদায়ের বাবলু বিশ্বাস, গোপালগঞ্জের শ্রী জয়রায় সম্প্রদায়ের বিপুল অধিকারী, রাজবাড়ীর বহরপুরের শ্রী শ্রী মহেশ্বরী সম্প্রদায়ের স্বপনদেব ভৌমিক, সনঞ্জয় বিশ্বাস। এ বিষয়ে বহরপুরের সাবেক বনিক সমিতির সেক্রেটারি বিশিষ্ট ব্যবসায়ী অনিমেষ কুমার দাস, বিপ্লব কুমার পাল, শী শ‍্যামল কুমার দাস ও গৌরাঙ্গ পোদ্দার বলেন, দীর্ঘদিনের ঐতিহ্য বহরপুরের রাসপূজা, রাসমেলা, নামযজ্ঞ, রাধা কৃষ্ণর জন্মাষ্টমিসহ বিভিন্ন ধর্মানুষ্ঠান পালন হয়ে আসছে। সম্প্রতি করোনাকালীন সময়ে এর একটু ভাটা পড়েছিল। আবার এলাকাবাসী ও বহরপুর বাজার ব‍্যবসায়ীদের সাথে নিয়ে ২৪ প্রহরব‍্যাপী মহানাম যজ্ঞানুষ্ঠানের আয়োজন করি হয়েছে। এবং আশা করছি সুন্দরভাবে আমাদের এই উৎসব পালিত হবে। বহরপুরের এই ঐতিহ্যবাহী অনুষ্ঠানে রাজবাড়ীসহ দেশের বিভিন্ন জেলা থেকে ভক্তবৃন্দের পদচারনায় মুখরিত হবে আমাদের এলাকা। আমরা বহরপুরবাসী সকলে মিলে গ্রামের এই ঐতিহ‍্যকে ধরে রাখতে আপ্রাণ চেষ্টা করছি। আমাদেরএই আয়োজনে এলাকার ভক্তগণ সার্বিকভাবে সহযোগিতা করেছে। এই আয়োজনে বাইরের ভক্তরাও অনেক বড় ভূমিকা রাখেন বলেও জানান তারা। বহরপুর মহেশ্বরী অঙ্গন মহানাম যজ্ঞানুষ্ঠানের আয়োজক কমিটির সদস‍্যরা বলেন, আমরা দীর্ঘদিন যাবৎ আমাদের এলাকায় এই ধর্মানুষ্ঠান পরিচালনা করে আসছি। আমাদের এই ধর্মানুষ্ঠানে দেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে শ্রী কৃষ্ণ ভক্তবৃন্দ এখানে আসে এবং অতি আনন্দের সাথে অনুষ্ঠান উপভোগ করাসহ ঠাকুরের প্রসাদ গ্রহণ করে ধন‍্য হয়। এবারেও তার ব‍্যাতিক্রম হবেনা বলে আশাবাদী। শুক্রবার (২৩ ফেব্রুয়ারি) মহাপ্রভূর ভোগরাগের মধ‍্যদিয়ে সুন্দরভাবে ২৪ প্রহরব‍্যাপী মহানাম যজ্ঞানুষ্ঠানের সমাপন হবে বলে আশা করছি।সকলের সার্বিক সহযোগিতা কামনা করছি।

Tag :

সংবাদটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন-

বহরপুরে  শ্রী শ্রী তারকব্রক্ষ্ম মহানাম যজ্ঞানুষ্ঠানের শুরু

প্রকাশের সময় : ০৯:৩১:০৯ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

রাজবাড়ী জেলা, বালিয়াকান্দি উপজেলা, বহরপুর ইউনিয়নের, বহরপুর সার্বজনীন শ্রী শ্রী মহেশ্বরী অঙ্গন প্রাঙ্গণে ২৪ প্রহরব‍্যাপী অখন্ড শ্রী শ্রী তারকব্রক্ষ্ম মহানাম যজ্ঞানুষ্ঠানের শুরু হয়েছে। ১৯ ফেব্রুয়ারি থেকে শুরু হয়ে এই মহানাম যজ্ঞানুষ্ঠান চলবে বুধবার ২৩ ফেব্রুয়ারি অরুণ্যেউদয় পযর্ন্ত। সোমবার (১৯ ফেব্রুয়ারি ) বিকালে গীতা ও শ্রীমতম্ভগবত গীতা পাঠ ও আলোচনা সভার মধ‍্যদিয়ে মহানাম যজ্ঞানুষ্ঠানের শুভ সুচনা হয়। এতে পাঠক ছিলেন মাগুরার মহারাজ শ্রী চিন্ময়ানন্দ দাস ব্রক্ষ্মচারী ( চঞ্চল গোস্বামী), শ্রী স্বপনদেব ভৌমিক, সঞ্জীব গোস্বামী বহরপুর। মঙ্গলবার (২০ ফেব্রুয়ারি) অরুণ্যেদয় থেকে শুরু হবে শ্রী শ্রী তারকব্রক্ষ্ম মহাসংকির্তণ। মঙ্গলবার সকাল হতে শুক্রবার (২৩ ফেব্রুয়ারি) সকাল পর্যন্ত চলবে ২৪ প্রহর ব‍্যাপী শ্রী শ্রী তারকব্রক্ষ্ম মহানাম যজ্ঞানুষ্ঠান। শুক্রবার (২৩ ফেব্রুয়ারি) দুপুর থেকে শ্রীমনমহাপ্রভূর ভোগবাস অনুষ্ঠান ও ভক্তগণের মাঝে মহাপ্রসাদ বিতরণের করছেন আয়োজকবৃন্দ। রাজবাড়ীর বালিয়াকান্দি উপজেলার বহরপুর ইউনিয়নের বহরপুর শ্রী শ্রী মহেশ্বরী অঙ্গনে আয়োজিত ২৪ প্রহরব‍্যাপী মহানাম যজ্ঞানুষ্ঠান তত্ত্বাবধান, পরিচালনা, পৃষ্ঠপোষকতা ও সার্বিকভাবে সহযোগীতা করেন বহরপুর বাজার ব‍্যবসায়ী এবং অত্র এলাকার গৌর ভক্তবৃন্দ। মহানামযজ্ঞানুষ্ঠানে যারা মহানাম সুধা পরিবেশন করবেন তাদের মধ‍্যে রয়েছে, কুষ্টিয়ার শচীনন্দন সম্প্রদায়ের সুমন চক্রবর্তী, গোপালগঞ্জের মা আনন্দময়ী সম্প্রদায়ের অমিতোষ মন্ডল, সিরাজগঞ্জের ভুবন মঙ্গল সম্প্রদায়ের বনবাসী সরকার, খুলনার শিশু কুঞ্জ সম্প্রদায়ের কৃষ্ণা রানী সরকার, ঝিনাইদহের গৌর হরি সম্প্রদায়ের বাবলু বিশ্বাস, গোপালগঞ্জের শ্রী জয়রায় সম্প্রদায়ের বিপুল অধিকারী, রাজবাড়ীর বহরপুরের শ্রী শ্রী মহেশ্বরী সম্প্রদায়ের স্বপনদেব ভৌমিক, সনঞ্জয় বিশ্বাস। এ বিষয়ে বহরপুরের সাবেক বনিক সমিতির সেক্রেটারি বিশিষ্ট ব্যবসায়ী অনিমেষ কুমার দাস, বিপ্লব কুমার পাল, শী শ‍্যামল কুমার দাস ও গৌরাঙ্গ পোদ্দার বলেন, দীর্ঘদিনের ঐতিহ্য বহরপুরের রাসপূজা, রাসমেলা, নামযজ্ঞ, রাধা কৃষ্ণর জন্মাষ্টমিসহ বিভিন্ন ধর্মানুষ্ঠান পালন হয়ে আসছে। সম্প্রতি করোনাকালীন সময়ে এর একটু ভাটা পড়েছিল। আবার এলাকাবাসী ও বহরপুর বাজার ব‍্যবসায়ীদের সাথে নিয়ে ২৪ প্রহরব‍্যাপী মহানাম যজ্ঞানুষ্ঠানের আয়োজন করি হয়েছে। এবং আশা করছি সুন্দরভাবে আমাদের এই উৎসব পালিত হবে। বহরপুরের এই ঐতিহ্যবাহী অনুষ্ঠানে রাজবাড়ীসহ দেশের বিভিন্ন জেলা থেকে ভক্তবৃন্দের পদচারনায় মুখরিত হবে আমাদের এলাকা। আমরা বহরপুরবাসী সকলে মিলে গ্রামের এই ঐতিহ‍্যকে ধরে রাখতে আপ্রাণ চেষ্টা করছি। আমাদেরএই আয়োজনে এলাকার ভক্তগণ সার্বিকভাবে সহযোগিতা করেছে। এই আয়োজনে বাইরের ভক্তরাও অনেক বড় ভূমিকা রাখেন বলেও জানান তারা। বহরপুর মহেশ্বরী অঙ্গন মহানাম যজ্ঞানুষ্ঠানের আয়োজক কমিটির সদস‍্যরা বলেন, আমরা দীর্ঘদিন যাবৎ আমাদের এলাকায় এই ধর্মানুষ্ঠান পরিচালনা করে আসছি। আমাদের এই ধর্মানুষ্ঠানে দেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে শ্রী কৃষ্ণ ভক্তবৃন্দ এখানে আসে এবং অতি আনন্দের সাথে অনুষ্ঠান উপভোগ করাসহ ঠাকুরের প্রসাদ গ্রহণ করে ধন‍্য হয়। এবারেও তার ব‍্যাতিক্রম হবেনা বলে আশাবাদী। শুক্রবার (২৩ ফেব্রুয়ারি) মহাপ্রভূর ভোগরাগের মধ‍্যদিয়ে সুন্দরভাবে ২৪ প্রহরব‍্যাপী মহানাম যজ্ঞানুষ্ঠানের সমাপন হবে বলে আশা করছি।সকলের সার্বিক সহযোগিতা কামনা করছি।