Dhaka ১০:২৭ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১২ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

চাকরির প্রলোভনে অর্থ আত্মসাতের অভিযোগে গ্রেপ্তার ২

স্টাফ রিপোর্টার
  • প্রকাশের সময় : ০৭:০০:২৪ অপরাহ্ন, শনিবার, ১০ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
  • / ১০৩০ জন সংবাদটি পড়েছেন

 সরকারি বেসরকারি বিভিন্ন দপ্তরে চাকরি দেওয়ার প্রলোভন দেখিয়ে অর্থ আত্মসাতের অভিযোগে দুজনকে গ্রেপ্তার করেছে রাজবাড়ীর ডিবি পুলিশ। তারা হলো রাজবাড়ী সদর উপজেলার উত্তর ভবানীপুর গ্রামের তাহের মন্ডলের ছেলে শরিফুল ইসলাম এবং নওগাঁ জেলার পোরশা উপজেলার লক্ষীপুর গ্রামের আকিমুদ্দিনের ছেলে আবু তাহের ওরফে ফয়সাল। শুক্রবার রাতে রাজবাড়ী ও ঢাকা থেকে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়।

এবিষয়ে রাজবাড়ীর পুলিশ সুপার জিএম আবুল কালাম আজাদ শনিবার দুপুরে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে জানান, এক যুবককে পুলিশে কনস্টেবল পদে নিয়োগ দেওয়ার জন্য তার কাছে ১৪ লাখ টাকা দাবী করে চক্রটি। এজন্য অগ্রিম হিসেবে সাত লাখ টাকা চায়। ওই যুবক পুলিশকে বিষয়টি জানালে চক্রটিকে ধরার জন্য ফাঁদ পাতা হয়। টাকা নেওয়ার কথা বলে প্রতারক চক্রের সদস্যকে রাজবাড়ী শহরের বড়পুল মোড়ে আসতে বলা হয়। প্রতারক শরিফুল বড়পুল মোড়ে আসলে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। পরে তার দেওয়া তথ্যমতে ঢাকা থেকে গ্রেপ্তার করা হয় তাহের ওরফে ফয়সালকে। তিনি আরও জানান, এই চক্রটি চাকুরি প্রত্যাশীদের কাছে সরকারি দপ্তরের দায়িত্বশীল কর্মকর্তা পরিচয় দিয়ে পুলিশ, সেনাবাহিনী, আনসার ভিডিপি, মন্ত্রণালয়ের গুরুত্বপূর্ণ পদে চাকরি দেওয়ার কথা বলে এ পর্যন্ত ৩০ লাখ ৫০ হাজার টাকা হাতিয়ে নিয়েছে এমন প্রমাণ পাওয়া গেছে।

গ্রেপ্তারকৃতদের কাছে থেকে চাকরি প্রত্যাশীদের ৫৩ টি জীবনবৃত্তান্ত, ১৩ টি ভুয়া নিয়োগপত্র, সাতটি ব্যাংক চেক, ৯টি নন জুডিশিয়াল স্ট্যাম্প, ভুয়া আইডি ও ভিজিটিং কার্ড, তিনটি মোবাইল ফোন, বিভিন্ন ব্যাংকের পাঁচটি চেক বই, তিনটি ব্যাংক এটিএম কার্ড, প্রতারণার বিবরণ লেখা ডায়েরি জব্দ করা হয়েছে।

প্রতারকদের বিরুদ্ধে মামলা দায়েরের পর শনিবার রাজবাড়ীর আদালতে চালান করা হয়েছে।

Tag :

সংবাদটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন-

চাকরির প্রলোভনে অর্থ আত্মসাতের অভিযোগে গ্রেপ্তার ২

প্রকাশের সময় : ০৭:০০:২৪ অপরাহ্ন, শনিবার, ১০ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

 সরকারি বেসরকারি বিভিন্ন দপ্তরে চাকরি দেওয়ার প্রলোভন দেখিয়ে অর্থ আত্মসাতের অভিযোগে দুজনকে গ্রেপ্তার করেছে রাজবাড়ীর ডিবি পুলিশ। তারা হলো রাজবাড়ী সদর উপজেলার উত্তর ভবানীপুর গ্রামের তাহের মন্ডলের ছেলে শরিফুল ইসলাম এবং নওগাঁ জেলার পোরশা উপজেলার লক্ষীপুর গ্রামের আকিমুদ্দিনের ছেলে আবু তাহের ওরফে ফয়সাল। শুক্রবার রাতে রাজবাড়ী ও ঢাকা থেকে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়।

এবিষয়ে রাজবাড়ীর পুলিশ সুপার জিএম আবুল কালাম আজাদ শনিবার দুপুরে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে জানান, এক যুবককে পুলিশে কনস্টেবল পদে নিয়োগ দেওয়ার জন্য তার কাছে ১৪ লাখ টাকা দাবী করে চক্রটি। এজন্য অগ্রিম হিসেবে সাত লাখ টাকা চায়। ওই যুবক পুলিশকে বিষয়টি জানালে চক্রটিকে ধরার জন্য ফাঁদ পাতা হয়। টাকা নেওয়ার কথা বলে প্রতারক চক্রের সদস্যকে রাজবাড়ী শহরের বড়পুল মোড়ে আসতে বলা হয়। প্রতারক শরিফুল বড়পুল মোড়ে আসলে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। পরে তার দেওয়া তথ্যমতে ঢাকা থেকে গ্রেপ্তার করা হয় তাহের ওরফে ফয়সালকে। তিনি আরও জানান, এই চক্রটি চাকুরি প্রত্যাশীদের কাছে সরকারি দপ্তরের দায়িত্বশীল কর্মকর্তা পরিচয় দিয়ে পুলিশ, সেনাবাহিনী, আনসার ভিডিপি, মন্ত্রণালয়ের গুরুত্বপূর্ণ পদে চাকরি দেওয়ার কথা বলে এ পর্যন্ত ৩০ লাখ ৫০ হাজার টাকা হাতিয়ে নিয়েছে এমন প্রমাণ পাওয়া গেছে।

গ্রেপ্তারকৃতদের কাছে থেকে চাকরি প্রত্যাশীদের ৫৩ টি জীবনবৃত্তান্ত, ১৩ টি ভুয়া নিয়োগপত্র, সাতটি ব্যাংক চেক, ৯টি নন জুডিশিয়াল স্ট্যাম্প, ভুয়া আইডি ও ভিজিটিং কার্ড, তিনটি মোবাইল ফোন, বিভিন্ন ব্যাংকের পাঁচটি চেক বই, তিনটি ব্যাংক এটিএম কার্ড, প্রতারণার বিবরণ লেখা ডায়েরি জব্দ করা হয়েছে।

প্রতারকদের বিরুদ্ধে মামলা দায়েরের পর শনিবার রাজবাড়ীর আদালতে চালান করা হয়েছে।