Dhaka ১২:১১ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৪, ৫ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

গোয়ালন্দে ম্যাগনেটিক চাল প্রতারক চক্রের সদস্য গ্রেপ্তার

আক্তারুজ্জামান মৃধা,  গোয়ালন্দ
  • প্রকাশের সময় : ০৯:১৪:৩৯ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৬ এপ্রিল ২০২৩
  • / ১১২৬ জন সংবাদটি পড়েছেন

গোয়ালন্দ উপজেলার দৌলতদিয়া বাংলাদেশ হ্যাচারিজের সামনে থেকে অভিনব কায়দায় ম্যাগনেটিক চালের মাধ্যমে প্রতারণাকারী চক্রের এক সদস্যকে গ্রেপ্তার করেছে গোয়ালন্দ ঘাট থানা পুলিশ। সে গোপালগঞ্জ জেলার মোকসেদপুর উপজেলার শালিনাবক্স গ্রামের মারকন্ঠ বিশ্বাসের ছেলে ক্ষীতিশ বিশ্বাস।  বৃহস্পতিবার সকালে গোয়ালন্দ ঘাট থানায় জেলা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ক্রাইম এন্ড অপস্) মো. রেজাউল করিম এক প্রেস ব্রিফিয়ে এ তথ্য জানান।

      এসময় তিনি বলেন, কিছুদিন যাবৎ একটি প্রতারক চক্র অভিনব কায়দায় অতি উচ্চমূল্যের ম্যাগনেটিক চাল বলে প্রতারণা চালিয়ে নিরীহ মানুষ ও ব্যবসায়ী কাছ থেকে মোটা অংকের টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে। তারা বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও এই প্রচারণা চালিয়ে আসছে। প্রতারণার কাজে তারা গবেষণাগার,  ঔষুধ কোম্পানি ও মেডিকেলে ব্যবহৃত ভাযাল ও মাইক্রো সেন্ট্রাফিউজ টিউবে অতি আকর্ষণীয় করে সুকৌশলে একটি চাল স্থাপন করে এটিকে ম্যাগনেটিক চাল বলে প্রচার করে। এমনকি ভাযাল ও মাইক্রো সেন্ট্রাফিউজ টিউবগুলোকে সুন্দরভাবে সুকৌশলে কয়েকটি স্তরে কাগজ, এলুমিনিয়াম ফয়েলে পেঁচিয়ে ও সর্বস্তরের উপরে টেপ পেঁচিয়ে আকর্ষণীয় করে মানুষের কাছে প্রতারণামূলকভাবে বিক্রি করে বিপুল পরিমান টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে। রাজবাড়ী জেলা পুলিশ এ ধরনের প্রতারক চক্রকে গ্রেপ্তারে তৎপর ছিল। এরই ধারাবাহিকতায় বুধবার দিনগত রাতে গোয়ালন্দ উপজেলার দৌলতদিয়া বাংলাদেশ হ্যাচারিজের সামনে থেকে প্রতারক চক্রের সদস্য ক্ষীতিশ বিশ্বাসকে গ্রেপ্তার করে। এসময় তার নিকট থেকে ৫ প্যাকেট প্রতারণার সরঞ্জামে সর্বমোট ২৮ টি ২ মিলি ভাযাল ও ৭ টি মাইক্রো সেন্ট্রাফিউজ টিউব পাওয়া যায়। যার প্রতিটির মধ্যে একটি সাধারণ চাল পাওয়া যায়। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে সে এ ঘটনার সাথে জরিত থাকার কথা স্বীকার করে। এ ব্যাপারে গোয়ালন্দ ঘাট থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। চক্রে জড়িত অন্যান্য সদস্যকে গ্রেপ্তারে অভিযান অব্যাহত আছে।

প্রেস ব্রিফিয়ে আরও উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) ইফতেখারুজ্জামান, গোয়ালন্দ ঘাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা স্বপন কুমার মজুমদার প্রমুখ।

Tag :

সংবাদটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন-

গোয়ালন্দে ম্যাগনেটিক চাল প্রতারক চক্রের সদস্য গ্রেপ্তার

প্রকাশের সময় : ০৯:১৪:৩৯ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৬ এপ্রিল ২০২৩

গোয়ালন্দ উপজেলার দৌলতদিয়া বাংলাদেশ হ্যাচারিজের সামনে থেকে অভিনব কায়দায় ম্যাগনেটিক চালের মাধ্যমে প্রতারণাকারী চক্রের এক সদস্যকে গ্রেপ্তার করেছে গোয়ালন্দ ঘাট থানা পুলিশ। সে গোপালগঞ্জ জেলার মোকসেদপুর উপজেলার শালিনাবক্স গ্রামের মারকন্ঠ বিশ্বাসের ছেলে ক্ষীতিশ বিশ্বাস।  বৃহস্পতিবার সকালে গোয়ালন্দ ঘাট থানায় জেলা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ক্রাইম এন্ড অপস্) মো. রেজাউল করিম এক প্রেস ব্রিফিয়ে এ তথ্য জানান।

      এসময় তিনি বলেন, কিছুদিন যাবৎ একটি প্রতারক চক্র অভিনব কায়দায় অতি উচ্চমূল্যের ম্যাগনেটিক চাল বলে প্রতারণা চালিয়ে নিরীহ মানুষ ও ব্যবসায়ী কাছ থেকে মোটা অংকের টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে। তারা বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও এই প্রচারণা চালিয়ে আসছে। প্রতারণার কাজে তারা গবেষণাগার,  ঔষুধ কোম্পানি ও মেডিকেলে ব্যবহৃত ভাযাল ও মাইক্রো সেন্ট্রাফিউজ টিউবে অতি আকর্ষণীয় করে সুকৌশলে একটি চাল স্থাপন করে এটিকে ম্যাগনেটিক চাল বলে প্রচার করে। এমনকি ভাযাল ও মাইক্রো সেন্ট্রাফিউজ টিউবগুলোকে সুন্দরভাবে সুকৌশলে কয়েকটি স্তরে কাগজ, এলুমিনিয়াম ফয়েলে পেঁচিয়ে ও সর্বস্তরের উপরে টেপ পেঁচিয়ে আকর্ষণীয় করে মানুষের কাছে প্রতারণামূলকভাবে বিক্রি করে বিপুল পরিমান টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে। রাজবাড়ী জেলা পুলিশ এ ধরনের প্রতারক চক্রকে গ্রেপ্তারে তৎপর ছিল। এরই ধারাবাহিকতায় বুধবার দিনগত রাতে গোয়ালন্দ উপজেলার দৌলতদিয়া বাংলাদেশ হ্যাচারিজের সামনে থেকে প্রতারক চক্রের সদস্য ক্ষীতিশ বিশ্বাসকে গ্রেপ্তার করে। এসময় তার নিকট থেকে ৫ প্যাকেট প্রতারণার সরঞ্জামে সর্বমোট ২৮ টি ২ মিলি ভাযাল ও ৭ টি মাইক্রো সেন্ট্রাফিউজ টিউব পাওয়া যায়। যার প্রতিটির মধ্যে একটি সাধারণ চাল পাওয়া যায়। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে সে এ ঘটনার সাথে জরিত থাকার কথা স্বীকার করে। এ ব্যাপারে গোয়ালন্দ ঘাট থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। চক্রে জড়িত অন্যান্য সদস্যকে গ্রেপ্তারে অভিযান অব্যাহত আছে।

প্রেস ব্রিফিয়ে আরও উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) ইফতেখারুজ্জামান, গোয়ালন্দ ঘাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা স্বপন কুমার মজুমদার প্রমুখ।