Dhaka ০৪:৫৮ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪, ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ফরিদপুরে জেলেদের মাঝে ভিজিএফ এর চাল বিতরণ

সংবাদদাতা-
  • প্রকাশের সময় : ০৮:০০:৩১ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৫ মার্চ ২০২১
  • / ১১৯২ জন সংবাদটি পড়েছেন

রবিউল হাসান রাজিবঃ ফরিদপুর সদর উপজেলার ডিক্রিরচর ইউনিয়নের ১৮৭ জেলে পরিবারের মাঝে ৮০ কেজি করে ভিজিএফ এর চাল বিতরণ করা হয়েছে। “নিরাপদ মাছে ভরবো দেশ, মুজিব বর্ষে বাংলাদেশ” এই শ্লোগান নিয়ে  সদর উপজেলা মৎস দপ্তরের আয়োজনে জাটকা আহরণে বিরত থাকা নিবন্ধিত জেলেদের মানবিক খাদ্য সহায়তা কর্মসূচীর আওতায় মুজিব বর্ষ উপলক্ষে ভিজিএফ (চাল) বিতরণ করা হয়। ১৫ই মার্চ দুপুর ১২ টায় ডিক্রিরচর ইউনিয়ন পরিষদে সদর উপজেলা চেয়ারম্যান আঃ রাজ্জাক মোল্লা প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে এই ভিজিএফ বিতরণ কর্মসূচির উদ্বোধন করেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন জেলা মৎস্য কর্মকর্তা মোঃ মনিরুল ইসলাম, সিনিয়র উপজেলা মৎস কর্মকর্তা বিজন কুমার নন্দী, ডিক্রিরচর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মেহেদী হাসান মিন্টু প্রমুখ। জেলা মৎস কর্মকর্তা জানান, নভেম্বর থেকে জুন পর্যন্ত ১০ ইঞ্চির কম ইলিশ আহরণ, পরিবহন, বিক্রয় নিষিদ্ধ করেছে সরকার। এছাড়াও আগামী ৪ এপ্রিল থেকে ১০ এপ্রিল পর্যন্ত জাটকা সংরক্ষণ সপ্তাহ পালন করা হবে। এই সময়ে জেলেরা যেন খাদ্য কষ্টে না থাকে সরকার সেজন্য প্রতিটি নিবন্ধিত জেলে পরিবারকে ৪০ কেজি করে দুই মাসের ফেব্রুয়ারী ও মার্চ ২০২১ মোট ৮০ কেজি করে চাউল দেওয়া হচ্ছে।আপনারা নিজেরাও জাটকা আহরণ থেকে বিরত থাকবেন এবং কেউ যদি নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে জাটকা আহরণ করে তাদেরকেউ বাধা প্রদান করবেন। এই জাটকা বড় হয়ে বড় বড় ইলিশে পরিনত হবে। তখন আপনারাই মাছ ধরবেন। এতে আপনারও লাভোবান হবেন এবং দেশও ইলিশ রপ্তানি করে অর্থনৈতিক ভাবে আরও সমৃদ্ধ হবে।

Tag :

সংবাদটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন-

ফরিদপুরে জেলেদের মাঝে ভিজিএফ এর চাল বিতরণ

প্রকাশের সময় : ০৮:০০:৩১ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৫ মার্চ ২০২১

রবিউল হাসান রাজিবঃ ফরিদপুর সদর উপজেলার ডিক্রিরচর ইউনিয়নের ১৮৭ জেলে পরিবারের মাঝে ৮০ কেজি করে ভিজিএফ এর চাল বিতরণ করা হয়েছে। “নিরাপদ মাছে ভরবো দেশ, মুজিব বর্ষে বাংলাদেশ” এই শ্লোগান নিয়ে  সদর উপজেলা মৎস দপ্তরের আয়োজনে জাটকা আহরণে বিরত থাকা নিবন্ধিত জেলেদের মানবিক খাদ্য সহায়তা কর্মসূচীর আওতায় মুজিব বর্ষ উপলক্ষে ভিজিএফ (চাল) বিতরণ করা হয়। ১৫ই মার্চ দুপুর ১২ টায় ডিক্রিরচর ইউনিয়ন পরিষদে সদর উপজেলা চেয়ারম্যান আঃ রাজ্জাক মোল্লা প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে এই ভিজিএফ বিতরণ কর্মসূচির উদ্বোধন করেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন জেলা মৎস্য কর্মকর্তা মোঃ মনিরুল ইসলাম, সিনিয়র উপজেলা মৎস কর্মকর্তা বিজন কুমার নন্দী, ডিক্রিরচর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মেহেদী হাসান মিন্টু প্রমুখ। জেলা মৎস কর্মকর্তা জানান, নভেম্বর থেকে জুন পর্যন্ত ১০ ইঞ্চির কম ইলিশ আহরণ, পরিবহন, বিক্রয় নিষিদ্ধ করেছে সরকার। এছাড়াও আগামী ৪ এপ্রিল থেকে ১০ এপ্রিল পর্যন্ত জাটকা সংরক্ষণ সপ্তাহ পালন করা হবে। এই সময়ে জেলেরা যেন খাদ্য কষ্টে না থাকে সরকার সেজন্য প্রতিটি নিবন্ধিত জেলে পরিবারকে ৪০ কেজি করে দুই মাসের ফেব্রুয়ারী ও মার্চ ২০২১ মোট ৮০ কেজি করে চাউল দেওয়া হচ্ছে।আপনারা নিজেরাও জাটকা আহরণ থেকে বিরত থাকবেন এবং কেউ যদি নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে জাটকা আহরণ করে তাদেরকেউ বাধা প্রদান করবেন। এই জাটকা বড় হয়ে বড় বড় ইলিশে পরিনত হবে। তখন আপনারাই মাছ ধরবেন। এতে আপনারও লাভোবান হবেন এবং দেশও ইলিশ রপ্তানি করে অর্থনৈতিক ভাবে আরও সমৃদ্ধ হবে।