Dhaka 7:51 pm, Friday, 3 February 2023

রাজবাড়ীতে প্রচন্ড শীতে ঠান্ডাজনিত রোগে আক্রাস্ত হচ্ছে শিশুরা

সংবাদদাতা-
  • প্রকাশের সময় : 06:17:54 pm, Wednesday, 3 February 2021
  • / 1169 জন সংবাদটি পড়েছেন

 জনতার আদালত অনলাইন ॥ রাজবাড়ীতে প্রচন্ড শীতে ঠান্ডাজনিত অসুখে আক্রান্ত হচ্ছে শিশুরা। আক্রান্ত হচ্ছে বয়ষ্করাও। ঠান্ডাজনিত অসুখে আক্রান্ত হয়ে গত দুই সপ্তাহে শিশুসহ সাত শতাধিক রোগী রাজবাড়ী সদর হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়েছে। দিনে তাপমাত্রা একটু বেশি থাকলেও রাতের তাপমাত্রা ক্রমশঃ নি¤œগামী থাকছে রাজবাড়ীতে।

পদ্মা নদীর তীরে অবস্থিত রাজবাড়ী জেলা শহর। শীতের সাথে হিমেল হাওয়ায় ঠান্ডা আরও জেঁকে বসেছে। গত সোমবার ভোরে রাজবাড়ীর তাপমাত্রা ১১ ডিগ্রীতে নেমেছিল। দিনের তাপমাত্রা একটু বেশি থাকলেও সন্ধ্যা থেকে কমতে শুরু করে। শীতের তীব্রতা বাড়ায় ঠান্ডাজনিত অসুখ সর্দি, কাশি, শ^াসকষ্ট, ডায়রিয়াসহ নানা রোগে আক্রান্ত হচ্ছে শিশু ও বৃদ্ধরা।

 রাজবাড়ী সদর হাসপাতাল সূত্র জানায়, ঠান্ডা জনিত অসুখে আক্রান্ত হয়ে বর্তমানে ৫৬ জন রোগী ভর্তি আছে হাসপাতালে। গত দুই সপ্তাহে  আন্তঃবিভাগ ও বহির্বিভাগ মিলিয়ে সাত শতাধিক রোগী চিকিৎসা নিয়েছে। যাদের বেশিরভাগই শিশু। রোগীর চাপ বাড়ায় চিকিৎসা দিতে গিয়ে হিমশিম খেতে হচ্ছে হাসপাপাতাল কর্তৃপক্ষকে। তবে ঠান্ডাজনিত রোগের পর্যাপ্ত ওষুধ থাকায় কিছুটা সুবিধা রয়েছে।

সদর উপজেলা এলাকার বাসিন্দা সাহানা বেগম তার নয় মাসের শিশুকে রাজবাড়ী সদর হাসপাতালে নিয়ে এসেছেন চিকিৎসার জন্য। তিনি জানান, গত কয়েকদিন ধরে তার শিশুর জ¦র ও কাশি। প্রথমে গ্রাম্য চিকিৎসকের কাছ থেে ক ওষুধ নিয়ে খাইছিলেন। না কমায় হাসপাতালে এসেছেন। এখানে তিনি চিকিৎসা পেয়েছেন।

 রাজবাড়ী সদর হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. দীপক কুমার বিশ^াস বলেন, শীতজনিত কারণে সদর হাসপাতালে রোগীর সংখ্যা আগের তুলনায় বেড়েছে। মেডিসিন ওয়ার্ডে অর্ধেকেরও বেশি রোগী ঠান্ডাজনিত রোগে আক্রান্ত হয়ে ভর্তি রয়েছে। তারা আপ্রাণ চেষ্টা করছেন চিকিৎসা সেবা দেওয়ার জন্য।

Tag :

সংবাদটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন-

রাজবাড়ীতে প্রচন্ড শীতে ঠান্ডাজনিত রোগে আক্রাস্ত হচ্ছে শিশুরা

প্রকাশের সময় : 06:17:54 pm, Wednesday, 3 February 2021

 জনতার আদালত অনলাইন ॥ রাজবাড়ীতে প্রচন্ড শীতে ঠান্ডাজনিত অসুখে আক্রান্ত হচ্ছে শিশুরা। আক্রান্ত হচ্ছে বয়ষ্করাও। ঠান্ডাজনিত অসুখে আক্রান্ত হয়ে গত দুই সপ্তাহে শিশুসহ সাত শতাধিক রোগী রাজবাড়ী সদর হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়েছে। দিনে তাপমাত্রা একটু বেশি থাকলেও রাতের তাপমাত্রা ক্রমশঃ নি¤œগামী থাকছে রাজবাড়ীতে।

পদ্মা নদীর তীরে অবস্থিত রাজবাড়ী জেলা শহর। শীতের সাথে হিমেল হাওয়ায় ঠান্ডা আরও জেঁকে বসেছে। গত সোমবার ভোরে রাজবাড়ীর তাপমাত্রা ১১ ডিগ্রীতে নেমেছিল। দিনের তাপমাত্রা একটু বেশি থাকলেও সন্ধ্যা থেকে কমতে শুরু করে। শীতের তীব্রতা বাড়ায় ঠান্ডাজনিত অসুখ সর্দি, কাশি, শ^াসকষ্ট, ডায়রিয়াসহ নানা রোগে আক্রান্ত হচ্ছে শিশু ও বৃদ্ধরা।

 রাজবাড়ী সদর হাসপাতাল সূত্র জানায়, ঠান্ডা জনিত অসুখে আক্রান্ত হয়ে বর্তমানে ৫৬ জন রোগী ভর্তি আছে হাসপাতালে। গত দুই সপ্তাহে  আন্তঃবিভাগ ও বহির্বিভাগ মিলিয়ে সাত শতাধিক রোগী চিকিৎসা নিয়েছে। যাদের বেশিরভাগই শিশু। রোগীর চাপ বাড়ায় চিকিৎসা দিতে গিয়ে হিমশিম খেতে হচ্ছে হাসপাপাতাল কর্তৃপক্ষকে। তবে ঠান্ডাজনিত রোগের পর্যাপ্ত ওষুধ থাকায় কিছুটা সুবিধা রয়েছে।

সদর উপজেলা এলাকার বাসিন্দা সাহানা বেগম তার নয় মাসের শিশুকে রাজবাড়ী সদর হাসপাতালে নিয়ে এসেছেন চিকিৎসার জন্য। তিনি জানান, গত কয়েকদিন ধরে তার শিশুর জ¦র ও কাশি। প্রথমে গ্রাম্য চিকিৎসকের কাছ থেে ক ওষুধ নিয়ে খাইছিলেন। না কমায় হাসপাতালে এসেছেন। এখানে তিনি চিকিৎসা পেয়েছেন।

 রাজবাড়ী সদর হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. দীপক কুমার বিশ^াস বলেন, শীতজনিত কারণে সদর হাসপাতালে রোগীর সংখ্যা আগের তুলনায় বেড়েছে। মেডিসিন ওয়ার্ডে অর্ধেকেরও বেশি রোগী ঠান্ডাজনিত রোগে আক্রান্ত হয়ে ভর্তি রয়েছে। তারা আপ্রাণ চেষ্টা করছেন চিকিৎসা সেবা দেওয়ার জন্য।