Dhaka ১০:১৭ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪, ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

রাজবাড়ীতে বিএনপির মেয়র প্রার্থীর মনোনয়ন বাতিল

সংবাদদাতা-
  • প্রকাশের সময় : ০৭:২৯:৩৩ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৯ জানুয়ারী ২০২১
  • / ১২৫৭ জন সংবাদটি পড়েছেন

জনতার আদালত অনলাইন ॥ রাজবাড়ী পৌরসভা নির্বাচনে যাচাই বাছাইয়ে ঋণ গ্রহীতার জামিনদার থাকায়  বিএনপি মনোনীত মেয়র প্রার্থী তোফাজ্জেল হোসেনের মনোনয়ন বাতিল করা  হয়েছে। মঙ্গলবার রাজবাড়ী জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে যাচাই বাছাই অনুষ্ঠিত হয়।

রাজবাড়ী সদর উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা  স্বপন সাহা জানান, ঋণ গ্রহীতার জামিনদার হওয়ার কারণে বিএনপি প্রার্থী তোফাজ্জেল হোসেনের মনোনয়ন বাতিল করা হয়েছে। এছাড়া বাদ বাকী সকল প্রার্থীর মনোনয়ন বৈধ হয়েছে। মনোনয়ন ফিরে পেতে চাইলে তাকে তিন দিনের মধ্যে জেলা প্রশাসকের কাছে আপীল করতে হবে।

বিএনপির মেয়র প্রার্থী তোফাজ্জেল হোসেন বলেন, আমি ঋণ খেলাপী নই। একজন ঋণ গ্রহীতার জামিনদার ছিলাম। সেটিও রোববার পরিশোধ করা হয়েছে। সেই কাগজও আমি জমা দিয়েছি। তারপরও আমার মনোনয়ন বাতিল করা হয়েছে। মনোনয়ন ফিরে আমি জেলা প্রশাসকের কাছে আপীল করব। সেখানে না পেলে প্রয়োজনে  উচ্চ আদালতে যাব। আমি মনোনয়ন ফিরে পাওয়ার ব্যাপারে দৃঢ়ভাবে আশাবাদী।

চতুর্থ ধাপে আগামী ১৪ ফেব্রুয়ারি রাজবাড়ী পৌরসভার নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

Tag :

সংবাদটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন-

রাজবাড়ীতে বিএনপির মেয়র প্রার্থীর মনোনয়ন বাতিল

প্রকাশের সময় : ০৭:২৯:৩৩ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৯ জানুয়ারী ২০২১

জনতার আদালত অনলাইন ॥ রাজবাড়ী পৌরসভা নির্বাচনে যাচাই বাছাইয়ে ঋণ গ্রহীতার জামিনদার থাকায়  বিএনপি মনোনীত মেয়র প্রার্থী তোফাজ্জেল হোসেনের মনোনয়ন বাতিল করা  হয়েছে। মঙ্গলবার রাজবাড়ী জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে যাচাই বাছাই অনুষ্ঠিত হয়।

রাজবাড়ী সদর উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা  স্বপন সাহা জানান, ঋণ গ্রহীতার জামিনদার হওয়ার কারণে বিএনপি প্রার্থী তোফাজ্জেল হোসেনের মনোনয়ন বাতিল করা হয়েছে। এছাড়া বাদ বাকী সকল প্রার্থীর মনোনয়ন বৈধ হয়েছে। মনোনয়ন ফিরে পেতে চাইলে তাকে তিন দিনের মধ্যে জেলা প্রশাসকের কাছে আপীল করতে হবে।

বিএনপির মেয়র প্রার্থী তোফাজ্জেল হোসেন বলেন, আমি ঋণ খেলাপী নই। একজন ঋণ গ্রহীতার জামিনদার ছিলাম। সেটিও রোববার পরিশোধ করা হয়েছে। সেই কাগজও আমি জমা দিয়েছি। তারপরও আমার মনোনয়ন বাতিল করা হয়েছে। মনোনয়ন ফিরে আমি জেলা প্রশাসকের কাছে আপীল করব। সেখানে না পেলে প্রয়োজনে  উচ্চ আদালতে যাব। আমি মনোনয়ন ফিরে পাওয়ার ব্যাপারে দৃঢ়ভাবে আশাবাদী।

চতুর্থ ধাপে আগামী ১৪ ফেব্রুয়ারি রাজবাড়ী পৌরসভার নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।