Dhaka 4:21 pm, Friday, 3 February 2023

একটি মানবিক আবেদন॥ ফুটফুটে ইয়াফিকে বাঁচাতে এগিয়ে আসুন

সংবাদদাতা-
  • প্রকাশের সময় : 08:20:05 pm, Friday, 25 December 2020
  • / 1226 জন সংবাদটি পড়েছেন

জনতার আদালত অনলাইন ॥ ইয়াফির বয়স মাত্র ১৯ মাস। ফুটফুটে মায়াবী চেহারা।   পৃথিবীটাও ভালো করে চেনা হয়নি তার। এ বয়সে আক্রান্ত হয়েছে জটিল কিডনী রোগে। চিকিৎসার জন্য প্রয়োজন অনেক টাকার। কিন্তু তার হতদরিদ্র বাবার পক্ষে এত টাকা  জোগাড় করা সম্ভব নয়। ইয়াফি রাজবাড়ী সদর উপজেলার খানগঞ্জ ইউনিয়নের ঘুঘুশাইল গ্রামের আক্কাছ আলীর একমাত্র মেয়ে। আক্কাছ আলী পেশায় একজন কৃষক।

জানা গেছে, ইয়াফি শারীরিকভাবে চরম অসুস্থ হয়ে পড়লে গত ৩ ডিসেম্বর তাকে রাজবাড়ী সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে সাতদিন চিকিৎসাধীন থাকার পর কিডনী জটিলতা দেখা দেওয়ায় চিকিৎসক তাকে ঢাকায় নেওয়ার পরামর্শ দেন। গত ১২ ডিসেম্বর ইয়াফিকে ঢাকার ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব কিডনি ডিজিসেস এন্ড ইউরোলজি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এখন পর্যন্ত ইয়াফি সেখানেই চিকিৎসাধীন।

আক্কাছ আলী জানান, ইয়াফি তার একমাত্র সন্তান। তার মেয়ে গত ১২ তারিখ থেকে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। এপর্যন্ত তার এক লাখ তিন হাজার টাকা খরচ হয়েছে। বিভিন্ন জনের কাছ থেকে ধারদেনা করে এ টাকা জোগাড় করেছেন। তার মেয়েকে সুস্থ করতে এখনও অনেক টাকার প্রয়োজন। কিন্তু কোথায় পাবেন এত টাকা। একদিকে দীর্ঘ প্রায় ১৫ দিন কর্মহীন হয়ে আছেন। অন্যদিকে মেয়ের চিকিৎসা খরচ। তিনি এখন দিশেহারা হয়ে পড়েছেন। তার ফুটফুটে মেয়েটিকে সুস্থ করে তুলতে সমাজের হৃদয়বান, বিত্তবান মানুষের কাছে সাহায্যের আবেদন জানিয়েছেন। সাহায্য পাঠানোর বিকাশ নাম্বার ০১৭৪২০০৮৯৯৬।

Tag :

সংবাদটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন-

একটি মানবিক আবেদন॥ ফুটফুটে ইয়াফিকে বাঁচাতে এগিয়ে আসুন

প্রকাশের সময় : 08:20:05 pm, Friday, 25 December 2020

জনতার আদালত অনলাইন ॥ ইয়াফির বয়স মাত্র ১৯ মাস। ফুটফুটে মায়াবী চেহারা।   পৃথিবীটাও ভালো করে চেনা হয়নি তার। এ বয়সে আক্রান্ত হয়েছে জটিল কিডনী রোগে। চিকিৎসার জন্য প্রয়োজন অনেক টাকার। কিন্তু তার হতদরিদ্র বাবার পক্ষে এত টাকা  জোগাড় করা সম্ভব নয়। ইয়াফি রাজবাড়ী সদর উপজেলার খানগঞ্জ ইউনিয়নের ঘুঘুশাইল গ্রামের আক্কাছ আলীর একমাত্র মেয়ে। আক্কাছ আলী পেশায় একজন কৃষক।

জানা গেছে, ইয়াফি শারীরিকভাবে চরম অসুস্থ হয়ে পড়লে গত ৩ ডিসেম্বর তাকে রাজবাড়ী সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে সাতদিন চিকিৎসাধীন থাকার পর কিডনী জটিলতা দেখা দেওয়ায় চিকিৎসক তাকে ঢাকায় নেওয়ার পরামর্শ দেন। গত ১২ ডিসেম্বর ইয়াফিকে ঢাকার ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব কিডনি ডিজিসেস এন্ড ইউরোলজি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এখন পর্যন্ত ইয়াফি সেখানেই চিকিৎসাধীন।

আক্কাছ আলী জানান, ইয়াফি তার একমাত্র সন্তান। তার মেয়ে গত ১২ তারিখ থেকে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। এপর্যন্ত তার এক লাখ তিন হাজার টাকা খরচ হয়েছে। বিভিন্ন জনের কাছ থেকে ধারদেনা করে এ টাকা জোগাড় করেছেন। তার মেয়েকে সুস্থ করতে এখনও অনেক টাকার প্রয়োজন। কিন্তু কোথায় পাবেন এত টাকা। একদিকে দীর্ঘ প্রায় ১৫ দিন কর্মহীন হয়ে আছেন। অন্যদিকে মেয়ের চিকিৎসা খরচ। তিনি এখন দিশেহারা হয়ে পড়েছেন। তার ফুটফুটে মেয়েটিকে সুস্থ করে তুলতে সমাজের হৃদয়বান, বিত্তবান মানুষের কাছে সাহায্যের আবেদন জানিয়েছেন। সাহায্য পাঠানোর বিকাশ নাম্বার ০১৭৪২০০৮৯৯৬।