Dhaka ০১:৪০ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১৬ জুন ২০২৪, ১ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বালিয়াকান্দিতে ২ ছেলের বিরুদ্ধে অভিযোগ দিতে থানায় বৃদ্ধা

সংবাদদাতা-
  • প্রকাশের সময় : ০৬:১৪:০৭ অপরাহ্ন, রবিবার, ৮ নভেম্বর ২০২০
  • / ১২৭৯ জন সংবাদটি পড়েছেন

জনতার আদালত অনলাইন॥ দুই ছেলে ও দুই পুত্রবধূর বিরুদ্ধে অভিযোগ দিতে থানার দ্বারস্থ  হয়েছেন ৭০ বছরের বৃদ্ধা ফুলজান বেগম। রাজবাড়ীর বালিয়াকান্দি উপজেলা এলাকায় শনিবার সন্ধ্যার দিকে এ ঘটনা ঘটে। তিনি একই উপজেলার হলুদবাড়িয়া গ্রামের  মৃত করিম শেখের স্ত্রী।

ওই  বৃদ্ধা জানান, ওহাব শেখ, তোফাজ্জেল শেখ ও আহমদ শেখ নামে তাঁর তিন ছেলে রয়েছে। ১৫ বছর আগে তার স্বামী মারা যাওয়ার আগে তাঁর নামে ৫০ শতাংশ জমি রেখে যান। স্বামী মারা যাওয়ার পর থেকে ছোট ছেলে আহমদ তাকে ভরণপোষণ করতো। কিছুদিন আগে তাঁর বড় ছেলে ওহাব ও মেঝো ছেলে তোফাজ্জেল বেড়ানোর কথা বলে তাকে বাড়ি থেকে কৌশলে বালিয়াকান্দি রেজিস্ট্রি অফিসে নিয়ে জমি লিখে নেয়। এঘটনার পর থেকে ছেলে ও ছেলের স্ত্রীরা তাকে বিভিন্ন ধরনের নির্যাতন করতে থাকে। গত বৃহস্পতিবার তাঁর ছোট ছেলে আহমদ জমিতে চাষাবাদ করতে যায়। এসময় বড় দুই ছেলে, ছেলের স্ত্রীরা ছোট ছেলেকে মারধর করে। তিনি বাধা দিতে গেলে তাকেও লাঞ্ছিত করে।

বালিয়াকান্দি থানার ওসি তারেকুজ্জামান জানান, একজন বিধবা নারী থানায় এসেছিলেন দুই ছেলের বিরুদ্ধে অভিযোগ নিয়ে। ওই নারী তাকে জানিয়েছেন দুই ছেলে তাকে ভরণপোষণ দেয়না। তবে ছোট ছেলে দেয়। সব শুনে তাকে লিখিত  অভিযোগ দিতে বলেছি। বৃদ্ধ বাবা-মায়ের দেখাশোনা না করলে আদালতে মামলা করার আইন রয়েছে। ঘটনাস্থলে গিয়ে সবকিছু জেনে পরবর্তী ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এ বিষয়ে অভিযুক্ত মো. ওহাব শেখ সাংবাদিকদের বলেন, মা যে অভিযোগ করেছে সেটা মিথ্যা। তিনি আমাদের জন্মদাত্রী। আমরা তাকে কোনো নির্যাতন করিনি।

Tag :

সংবাদটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন-

বালিয়াকান্দিতে ২ ছেলের বিরুদ্ধে অভিযোগ দিতে থানায় বৃদ্ধা

প্রকাশের সময় : ০৬:১৪:০৭ অপরাহ্ন, রবিবার, ৮ নভেম্বর ২০২০

জনতার আদালত অনলাইন॥ দুই ছেলে ও দুই পুত্রবধূর বিরুদ্ধে অভিযোগ দিতে থানার দ্বারস্থ  হয়েছেন ৭০ বছরের বৃদ্ধা ফুলজান বেগম। রাজবাড়ীর বালিয়াকান্দি উপজেলা এলাকায় শনিবার সন্ধ্যার দিকে এ ঘটনা ঘটে। তিনি একই উপজেলার হলুদবাড়িয়া গ্রামের  মৃত করিম শেখের স্ত্রী।

ওই  বৃদ্ধা জানান, ওহাব শেখ, তোফাজ্জেল শেখ ও আহমদ শেখ নামে তাঁর তিন ছেলে রয়েছে। ১৫ বছর আগে তার স্বামী মারা যাওয়ার আগে তাঁর নামে ৫০ শতাংশ জমি রেখে যান। স্বামী মারা যাওয়ার পর থেকে ছোট ছেলে আহমদ তাকে ভরণপোষণ করতো। কিছুদিন আগে তাঁর বড় ছেলে ওহাব ও মেঝো ছেলে তোফাজ্জেল বেড়ানোর কথা বলে তাকে বাড়ি থেকে কৌশলে বালিয়াকান্দি রেজিস্ট্রি অফিসে নিয়ে জমি লিখে নেয়। এঘটনার পর থেকে ছেলে ও ছেলের স্ত্রীরা তাকে বিভিন্ন ধরনের নির্যাতন করতে থাকে। গত বৃহস্পতিবার তাঁর ছোট ছেলে আহমদ জমিতে চাষাবাদ করতে যায়। এসময় বড় দুই ছেলে, ছেলের স্ত্রীরা ছোট ছেলেকে মারধর করে। তিনি বাধা দিতে গেলে তাকেও লাঞ্ছিত করে।

বালিয়াকান্দি থানার ওসি তারেকুজ্জামান জানান, একজন বিধবা নারী থানায় এসেছিলেন দুই ছেলের বিরুদ্ধে অভিযোগ নিয়ে। ওই নারী তাকে জানিয়েছেন দুই ছেলে তাকে ভরণপোষণ দেয়না। তবে ছোট ছেলে দেয়। সব শুনে তাকে লিখিত  অভিযোগ দিতে বলেছি। বৃদ্ধ বাবা-মায়ের দেখাশোনা না করলে আদালতে মামলা করার আইন রয়েছে। ঘটনাস্থলে গিয়ে সবকিছু জেনে পরবর্তী ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এ বিষয়ে অভিযুক্ত মো. ওহাব শেখ সাংবাদিকদের বলেন, মা যে অভিযোগ করেছে সেটা মিথ্যা। তিনি আমাদের জন্মদাত্রী। আমরা তাকে কোনো নির্যাতন করিনি।