Dhaka ১১:২৭ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪, ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

কালুখালীর রবিউল হত্যা মামলা তুলে নিতে বাদীকে হুমকির অভিযোগ

সংবাদদাতা-
  • প্রকাশের সময় : ০৭:৩৭:১৬ অপরাহ্ন, শনিবার, ৫ সেপ্টেম্বর ২০২০
  • / ১৯৩৬ জন সংবাদটি পড়েছেন

জনতার আদালত অনলাইন ॥ রাজবাড়ীর কালুখালী উপজেলার মাজবাড়ি ইউনিয়নের বেতবাড়িয়া গ্রামে মুক্তিযোদ্ধার সন্তান বেকারী ব্যবসায়ী রবিউল ইসলাম হত্যা  মামলা তুলে নিতে বাদী আমেনা বেগমকে হুমকি দেয়া হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় আমেনা বেগম বাদী হয়ে ইউসুফ মেম্বারসহ ১৫ জনের নাম উল্লেখ করে গত বৃহস্পতিবার রাজবাড়ীর ২ নং আমলী আদালতে আরও একটি মামলা দায়ের করেছেন। আমেনা বেগম নিহত রবিউল ইসলামের বোন ও  মাজবাড়ি ইউনিয়নের সংরক্ষিত নারী সদস্য।

মামলার আসামিরা হলো আহম্মদ মোল্লা, রাজ্জাক মোল্লা, সহিদ মোল্লা, রমজান মোল্লা, রবিউল মোল্লা,  রাজু মন্ডল, সিরাজ খা, নবা খা, আকবর মন্ডল, পলাশ মোল্লা, ইউনুস আলী। এদের বাড়ি একই ইউনিয়নের বিভিন্ন গ্রামে। আদালতের বিচারক মৌসুমী সাহা মামলাটি গ্রহণ করে তদন্তের জন্য কালুখালী থানার ওসিকে নির্দেশ দিয়েছেন।

মামলায় বাদী অভিযোগ করেন, গত ১৪ আগস্ট গভীর রাতে তার সহোদর ভাই রবিউলকে নির্মমভাবে খুন করার পর ১৮ আগস্ট তারিখে তিনি বাদী হয়ে রাজবাড়ীর আদালতে হত্যা মামলা দায়ের করেন। এরপর তাকে নানাভাবে হুমকি ধমকি দেয়া হচ্ছিল। গত ২ সেপ্টেম্বর তারিখে তিনি বেতবাড়িয়া গ্রামে বাবার বাড়ি যাওয়ার পর আসামিরা তাকে ঘিরে ধরে হামলার চেষ্টা চালায়। এসময় তিনি চিৎকার দিলে প্রতিবেশিরা এগিয়ে এসে তাকে রক্ষা করে। আসামিরা যাবার সময় বলে যায়, সাতদিনের মধ্যে মামলা প্রত্যাহার না হলে তাকেও  তার ভাইয়ের মত হত্যা করবে।

গত ১৪ আগস্ট দিবাগত রাতে দুর্বৃত্তরা রবিউল বিশ্বাসকে বিলের পানিতে চুবিয়ে হত্যা করে। পরদিন সকালে তার লাশ উদ্ধার করা হয়।

Tag :

সংবাদটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন-

কালুখালীর রবিউল হত্যা মামলা তুলে নিতে বাদীকে হুমকির অভিযোগ

প্রকাশের সময় : ০৭:৩৭:১৬ অপরাহ্ন, শনিবার, ৫ সেপ্টেম্বর ২০২০

জনতার আদালত অনলাইন ॥ রাজবাড়ীর কালুখালী উপজেলার মাজবাড়ি ইউনিয়নের বেতবাড়িয়া গ্রামে মুক্তিযোদ্ধার সন্তান বেকারী ব্যবসায়ী রবিউল ইসলাম হত্যা  মামলা তুলে নিতে বাদী আমেনা বেগমকে হুমকি দেয়া হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় আমেনা বেগম বাদী হয়ে ইউসুফ মেম্বারসহ ১৫ জনের নাম উল্লেখ করে গত বৃহস্পতিবার রাজবাড়ীর ২ নং আমলী আদালতে আরও একটি মামলা দায়ের করেছেন। আমেনা বেগম নিহত রবিউল ইসলামের বোন ও  মাজবাড়ি ইউনিয়নের সংরক্ষিত নারী সদস্য।

মামলার আসামিরা হলো আহম্মদ মোল্লা, রাজ্জাক মোল্লা, সহিদ মোল্লা, রমজান মোল্লা, রবিউল মোল্লা,  রাজু মন্ডল, সিরাজ খা, নবা খা, আকবর মন্ডল, পলাশ মোল্লা, ইউনুস আলী। এদের বাড়ি একই ইউনিয়নের বিভিন্ন গ্রামে। আদালতের বিচারক মৌসুমী সাহা মামলাটি গ্রহণ করে তদন্তের জন্য কালুখালী থানার ওসিকে নির্দেশ দিয়েছেন।

মামলায় বাদী অভিযোগ করেন, গত ১৪ আগস্ট গভীর রাতে তার সহোদর ভাই রবিউলকে নির্মমভাবে খুন করার পর ১৮ আগস্ট তারিখে তিনি বাদী হয়ে রাজবাড়ীর আদালতে হত্যা মামলা দায়ের করেন। এরপর তাকে নানাভাবে হুমকি ধমকি দেয়া হচ্ছিল। গত ২ সেপ্টেম্বর তারিখে তিনি বেতবাড়িয়া গ্রামে বাবার বাড়ি যাওয়ার পর আসামিরা তাকে ঘিরে ধরে হামলার চেষ্টা চালায়। এসময় তিনি চিৎকার দিলে প্রতিবেশিরা এগিয়ে এসে তাকে রক্ষা করে। আসামিরা যাবার সময় বলে যায়, সাতদিনের মধ্যে মামলা প্রত্যাহার না হলে তাকেও  তার ভাইয়ের মত হত্যা করবে।

গত ১৪ আগস্ট দিবাগত রাতে দুর্বৃত্তরা রবিউল বিশ্বাসকে বিলের পানিতে চুবিয়ে হত্যা করে। পরদিন সকালে তার লাশ উদ্ধার করা হয়।