Dhaka ০৪:৩২ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪, ১ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

দৌলতদিয়া যৌনপল্লীতে ডাকাতির ঘটনায় গ্রেপ্তার ২

সংবাদদাতা-
  • প্রকাশের সময় : ০৮:৫৩:৪৮ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৪ অগাস্ট ২০২০
  • / ১২৯৯ জন সংবাদটি পড়েছেন

জনতার আদালত অনলাইন ॥ রাজবাড়ীর গোয়ালন্দ উপজেলার দৌলতদিয়া যৌনপল্লীতে রবিবার ডাকাতির ঘটনায় দুই জনকে গ্রেফতার করেছে থানা পুলিশ। এরা হলো দৌলতদিয়া সামসু মাস্টারপাড়ার রুহুল ব্যাপারীর ছেলে পিঞ্জয় (২১) ও দৌলতদিয়া ২নং বেপারীপাড়ার আবুল ডাক্তারের ছেলে খায়রুল মৃধা (২৩)।

গত রোববার ভোররাত ৪ টার দিকে পল্লীর বাড়ীওয়ালী নাজমা বেগমের বাড়ীতে এ ডাকাতির ঘটনায় ডাকাত দল নগদ ১ লক্ষ টাকা, মোবাইল, স্বর্ণের গহনাসহ ৩ লক্ষাধিক টাকার মালামাল ছিনিয়ে নেয়। ডাকাতদের হামলায় ৫জন জখম হয়। এদের মধ্যে মুক্তার হোসেন (৪০) নামের আহত একজন গোয়ালন্দ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

এ ঘটনায় রবিবার দুপুরে গোয়ালন্দঘাট থানায় নাজমা বেগমের দায়ের করা মামলার অপর আসামীরা হলো স্থানীয় চিহ্নিত সন্ত্রাসী নুরু কাজী, আরিফ, টুটুল, জসিম, লিটন, হিরো, রাজিবসহ অজ্ঞাতনামা আরোও ১০/১২ জন। এজাহারে বাদী উল্লেখ করেছেন, রোববার ভোরে উল্লেখিত আসামীরা অস্ত্রসস্ত্র নিয়ে যৌন পল্লীতে তার বাড়ীতে প্রবেশ করে। তারা আমাদেরকে মারধোর করে নগদ ১ লক্ষ টাকা, মোবাইল, স্বর্ণের গহনাসহ ৩ লক্ষাধিক টাকার মালামাল ছিনিয়ে নেয়। এ চক্রটি ইতিপূর্বে আমার কাছ থেকে জোর করে ৫০ হাজার টাকা চাঁদা আদায় করে। পূনরায় চাঁদা দিতে অস্বীকার করায় তারা আমার বাড়ীতে ডাকাািতর ঘটনা ঘটিয়েছে।

এ বিষয়ে গোয়ালন্দ ঘাট থানার ওসি মোঃ আশিকুর রহমান জানান, সোমবার সকাল ৯টার দিকে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে  যৌনপল্লী এলাকায় অভিযান চালিয়ে ওই দুই আসামীকে গ্রেফতার করা হয়। তাদেরকে রাজবাড়ীর আদালতে পাঠানো হয়েছে। অপর আসামীদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

Tag :

সংবাদটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন-

দৌলতদিয়া যৌনপল্লীতে ডাকাতির ঘটনায় গ্রেপ্তার ২

প্রকাশের সময় : ০৮:৫৩:৪৮ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৪ অগাস্ট ২০২০

জনতার আদালত অনলাইন ॥ রাজবাড়ীর গোয়ালন্দ উপজেলার দৌলতদিয়া যৌনপল্লীতে রবিবার ডাকাতির ঘটনায় দুই জনকে গ্রেফতার করেছে থানা পুলিশ। এরা হলো দৌলতদিয়া সামসু মাস্টারপাড়ার রুহুল ব্যাপারীর ছেলে পিঞ্জয় (২১) ও দৌলতদিয়া ২নং বেপারীপাড়ার আবুল ডাক্তারের ছেলে খায়রুল মৃধা (২৩)।

গত রোববার ভোররাত ৪ টার দিকে পল্লীর বাড়ীওয়ালী নাজমা বেগমের বাড়ীতে এ ডাকাতির ঘটনায় ডাকাত দল নগদ ১ লক্ষ টাকা, মোবাইল, স্বর্ণের গহনাসহ ৩ লক্ষাধিক টাকার মালামাল ছিনিয়ে নেয়। ডাকাতদের হামলায় ৫জন জখম হয়। এদের মধ্যে মুক্তার হোসেন (৪০) নামের আহত একজন গোয়ালন্দ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

এ ঘটনায় রবিবার দুপুরে গোয়ালন্দঘাট থানায় নাজমা বেগমের দায়ের করা মামলার অপর আসামীরা হলো স্থানীয় চিহ্নিত সন্ত্রাসী নুরু কাজী, আরিফ, টুটুল, জসিম, লিটন, হিরো, রাজিবসহ অজ্ঞাতনামা আরোও ১০/১২ জন। এজাহারে বাদী উল্লেখ করেছেন, রোববার ভোরে উল্লেখিত আসামীরা অস্ত্রসস্ত্র নিয়ে যৌন পল্লীতে তার বাড়ীতে প্রবেশ করে। তারা আমাদেরকে মারধোর করে নগদ ১ লক্ষ টাকা, মোবাইল, স্বর্ণের গহনাসহ ৩ লক্ষাধিক টাকার মালামাল ছিনিয়ে নেয়। এ চক্রটি ইতিপূর্বে আমার কাছ থেকে জোর করে ৫০ হাজার টাকা চাঁদা আদায় করে। পূনরায় চাঁদা দিতে অস্বীকার করায় তারা আমার বাড়ীতে ডাকাািতর ঘটনা ঘটিয়েছে।

এ বিষয়ে গোয়ালন্দ ঘাট থানার ওসি মোঃ আশিকুর রহমান জানান, সোমবার সকাল ৯টার দিকে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে  যৌনপল্লী এলাকায় অভিযান চালিয়ে ওই দুই আসামীকে গ্রেফতার করা হয়। তাদেরকে রাজবাড়ীর আদালতে পাঠানো হয়েছে। অপর আসামীদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।