Dhaka ০৮:৫২ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৯ জুন ২০২৪, ৫ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

রাজবাড়ীতে হাজার পেরিয়ে করোনা : উদ্বেগ উৎকণ্ঠা বাড়ছে ক্রমশঃ

সংবাদদাতা-
  • প্রকাশের সময় : ০৮:৩০:২৯ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৩ জুলাই ২০২০
  • / ১৩৬৮ জন সংবাদটি পড়েছেন

জনতার আদালত অনলাইন ॥ রাজবাড়ীতে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা হাজার পেরিয়ে গেছে। নমুনা পরীক্ষায় শনাক্তের হারেও চিন্তার উদ্রেকের রয়েছে যথেষ্ঠ কারণ। করোনার নমুনা পরীক্ষা ও চিকিৎসা ব্যবস্থা নিয়েও রয়েছে অসন্তোষ। জেলায় এখন করোনা রোগীর সংখ্যা ১০০৮ জন।

রাজবাড়ী জেলা সিভিল সার্জন সূত্র জানায়, গত ২০ জুলাই তারিখে  ৭৪ জনের নমুনা পাঠানো হয়। বৃহস্পতিবার পজিটিভ এসেছে ৩৭ জনের। শনাক্ত বিবেচনায় যা ৫০ শতাংশ। আক্রান্তদের মধ্যে  রাজবাড়ী সদর উপজেলায় ১৮ জন, পাংশায় ৩ জন, কালুখালীতে  ৪ জন, বালিয়াকান্দিতে  ১১ জন ও গোয়ালন্দে ১ জন।

জেলায় মোট আক্রান্তের মধ্যে সুস্থ হয়েছেন ৫৫১ জন। মারা গেছেন ৯ জন। হোম আইসোলেশনে আছেন  ৩৯৩ জন। হাসপাতালে ভর্তি ১৮ জন।

এদিকে করোনা পরীক্ষার নমুনা দেয়া ও চিকিৎসা ব্যবস্থা নিয়ে অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন অনেকেই। তারা বলছেন, দীর্ঘ সময় লাইনে দাঁড়িয়ে নমুনা দেয়ার কারণে যারা আক্রান্ত নন তারাও আক্রান্ত হতে পারেন। এছাড়া  করোনা আক্রান্ত রোগীরা অনেক সময় যত্রতত্র ঘুরে বেড়াতেও দেখা যাচ্ছে। এতে করে করোনার সংক্রমণ বাড়ার সম্ভাবনা রয়েছে। হোম আইসোলেশনে থাকা রোগীরা অনেক সময় ডাক্তারদের  সহযোগিতা পাচ্ছেন না বলেও অভিযোগ করেছেন অনেকেই।

করোনা মোকাবেলায় মানুষকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলাসহ ডাক্তারদের আন্তরিকতার সাথে দায়িত্ব পালনের আহ্বান জানিয়েছেন জেলার সচেতন সমাজ।

Tag :

সংবাদটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন-

রাজবাড়ীতে হাজার পেরিয়ে করোনা : উদ্বেগ উৎকণ্ঠা বাড়ছে ক্রমশঃ

প্রকাশের সময় : ০৮:৩০:২৯ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৩ জুলাই ২০২০

জনতার আদালত অনলাইন ॥ রাজবাড়ীতে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা হাজার পেরিয়ে গেছে। নমুনা পরীক্ষায় শনাক্তের হারেও চিন্তার উদ্রেকের রয়েছে যথেষ্ঠ কারণ। করোনার নমুনা পরীক্ষা ও চিকিৎসা ব্যবস্থা নিয়েও রয়েছে অসন্তোষ। জেলায় এখন করোনা রোগীর সংখ্যা ১০০৮ জন।

রাজবাড়ী জেলা সিভিল সার্জন সূত্র জানায়, গত ২০ জুলাই তারিখে  ৭৪ জনের নমুনা পাঠানো হয়। বৃহস্পতিবার পজিটিভ এসেছে ৩৭ জনের। শনাক্ত বিবেচনায় যা ৫০ শতাংশ। আক্রান্তদের মধ্যে  রাজবাড়ী সদর উপজেলায় ১৮ জন, পাংশায় ৩ জন, কালুখালীতে  ৪ জন, বালিয়াকান্দিতে  ১১ জন ও গোয়ালন্দে ১ জন।

জেলায় মোট আক্রান্তের মধ্যে সুস্থ হয়েছেন ৫৫১ জন। মারা গেছেন ৯ জন। হোম আইসোলেশনে আছেন  ৩৯৩ জন। হাসপাতালে ভর্তি ১৮ জন।

এদিকে করোনা পরীক্ষার নমুনা দেয়া ও চিকিৎসা ব্যবস্থা নিয়ে অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন অনেকেই। তারা বলছেন, দীর্ঘ সময় লাইনে দাঁড়িয়ে নমুনা দেয়ার কারণে যারা আক্রান্ত নন তারাও আক্রান্ত হতে পারেন। এছাড়া  করোনা আক্রান্ত রোগীরা অনেক সময় যত্রতত্র ঘুরে বেড়াতেও দেখা যাচ্ছে। এতে করে করোনার সংক্রমণ বাড়ার সম্ভাবনা রয়েছে। হোম আইসোলেশনে থাকা রোগীরা অনেক সময় ডাক্তারদের  সহযোগিতা পাচ্ছেন না বলেও অভিযোগ করেছেন অনেকেই।

করোনা মোকাবেলায় মানুষকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলাসহ ডাক্তারদের আন্তরিকতার সাথে দায়িত্ব পালনের আহ্বান জানিয়েছেন জেলার সচেতন সমাজ।