Dhaka 6:42 pm, Friday, 3 February 2023

রাজবাড়ী সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের অনলাইন ক্লাসের দুই মাস পূর্তি উপলক্ষে আলোচনা সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান

সংবাদদাতা-
  • প্রকাশের সময় : 06:30:29 pm, Friday, 10 July 2020
  • / 1556 জন সংবাদটি পড়েছেন

 

জনতার আদালত অনলাইন

রাজবাড়ীতে অনলাইন ক্লাস পরিচালনায় অনুকরণীয় দৃষ্টান্ত স্থাপন করলেন রাজবাড়ী সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক ও জেলা অ্যাম্বাসেডর প্রদ্যুত কুমার দাস।

রাজবাড়ী সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের অনলাইন ক্লাসের দুই মাস পূর্তি উপলক্ষে আলোচনা ও সাংস্কৃতিক আড্ডা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার বিকেল সাড়ে পাঁচটায় জুম সফটওয়ারের মাধ্যমে রাজবাড়ী জেলা প্রশাসন, তথ্য প্রযুক্তি বিভাগের কর্মকর্তা, শিক্ষক শিক্ষিকা, অভিভাবক ও শিক্ষার্থীরা অংশগ্রহণ করেন। করোনা সংক্রমণের ফলে শিক্ষা কার্যক্রম বন্ধ হয়ে যাওয়ায় বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের স্বতস্ফূর্ত উদ্যোগে গত ৯ মে থেকে অনলাইন ক্লাস কার্যক্রম চালু হয়।

অনলাইন আলোচনায় বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক মাহবুবা আক্তার বলেন,  স্বাস্থ্যঝুঁকির মাঝে যখন সবকিছু স্থবির ছিল। তখনই চিন্তাভাবনা চলছিল কিছু করা যায় কীনা? বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক প্রদ্যুৎ কুমার দাস উদ্যোগি হয়ে এ অনলাইন ক্লাস চালু করেন। বর্তমানে ২১ জন শিক্ষক এ অনলাইন ক্লাসে যুক্ত আছেন। নিয়মিত পাঁচটি  করে ক্লাস নেয়া হচ্ছে। এটা আমাদের বিরাট এক সফলতা।

বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক প্রদ্যুৎ কুমার দাসের সঞ্চালনায় অন্যদের মাঝে আলোচনায় অংশ নেন রাজবাড়ীর অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) সরকার আব্দুল্লাহ আল মামুন, এটুআই এর প্রোগ্রাম কো অর্ডিনেটর মো. কবির হোসেন, প্রোগ্রাম অ্যসিস্ট্যান্ড অভিজিৎ সাহা, ফরিদপুর টিচার্স ট্রেনিং কলেজের সহকারী  অধ্যাপক রোকনুজ্জামান শিকদার, সহকারী অধ্যাপক মাহিদুল ইসলাম, রাজবাড়ী সরকারি কলেজের অধ্যাপক আক্কাছ আলী, রাজবাড়ীর প্রাক্তন জেলা শিক্ষা অফিসার সৈয়দ সিদ্দিকুর রহমান, রাজধানী ঢাকার মতিঝিল গভঃ বয়েজ স্কুলের সহকারী শিক্ষক  শাহীনা কবির, মোহম্মদপুর গভঃ বয়েজ স্কুলের সহকারী শিক্ষক উম্মে হাবিবা, রাজবাড়ী সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের  সহকারী শিক্ষক আব্দুল মান্নান, কলেজ শিক্ষক শামীমা আক্তার মুনমুন, প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক শাহীন আল মাসুদ প্রমুখ।

অনলাইন ক্লাসের উদ্যোক্তা প্রদ্যুত কুমার দাস বলেন, শিক্ষার্থীদের পড়ালেখার কথা চিন্তা করে শিক্ষক হিসেবে নিজের দায়বদ্ধতার জায়গা থেকেই উদ্যোগটি গ্রহণ করেছিলাম। আমার সহকর্মীদের শ্রেনি কার্যক্রমে অংশগ্রহণ এবং প্রধান শিক্ষকের অনুপ্রেরণায় অনলাইন ক্লাস কার্য্যক্রম আজ এই জায়গায় পৌছেছে। ইতি মধ্যে আমাদের বিদ্যালয়ের ২২জন শিক্ষক রুটিন অনুযায়ি লাইভ ক্লাস নিচ্ছেন। এ পর্যন্ত আমরা বিভিন্ন বিষয়ে ২২০টি লাইভ ক্লাস নিয়েছি। শিক্ষক বাতায়নে নিবন্ধিত হওয়ায় আমাদের ক্লাসগুলো বাতায়নে আপলোড দিয়ে থাকি। আমার বিশ্বাস বাংলাদেশের আর কোন স্কুলের এত বেশি সংখ্যক শিক্ষক  অনলাইন ক্লাসের সাথে যুক্ত নাই। এটি সম্ভব হয়েছে আমার সহকর্মীদের আমার প্রতি ভালবাসা থেকে।

ফরিদপুর সরকারি  টিসার্স ট্রেনিং কলেজের সহকারী অধ্যাপক মাহিদুল ইসলাম বলেন, রাজবাড়ী সরকারি উচ্চ বিদ্রালয় অনলাইন এর যে ক্লাস গুলো আমি দেখেছি তাতে আমার কাছে মনে হয়েছে দেশের অন্যান্য অনলাইন স্কুলের ক্লাস থেকে এই ক্লাস গুলো অনেক বেশি মান সম্পন্ন।

 ফরিদপুর সরকারি  টিসার্স ট্রেনিং কলেজের সহকারী অধ্যাপক মোঃরোকনুজ্জামান শিকদার বলেন, এটি নিঃসন্দেহে একটি প্রশংসনীয় উদ্যোগ।

এটুআই প্রোগ্রাম এ্যাসিস্টেন্ট অভিজিৎ সাহা বলেন, এই মহৎ উদ্যোগকে আমরা সাধুবাদ জানাই এবং কষ্টকরে হলেও অনলাইন কার্যক্রমের এই ধারা অব্যাহত রাখতে হবে।

এটুআই এর প্রোগ্রাম কোঅর্ডিনেটর মোঃ কবীর হোসেন বলেন, পরীক্ষা হওয়া জরুরী নয়। জরুরী যেটি সেটি হচ্ছে শিক্ষার্থীদের যেভাবেই হোক শিক্ষার সাথে যুক্ত রাখা। যেটি এধরনের উদ্যমী শিক্ষকদের দারাই সম্ভব।

রাজবাড়ীর অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) আব্দুরøাহ আল মামুন বলেন, সুবিধা বঞ্চিত শিক্ষার্থীদের কাছে কিভাবে এই ক্লাস গুলোকে কিভাবে পৌছে দেওয়া যায় সে ব্যাপারে  জেলা প্রশাসন কাজ করে যাচ্ছে। প্রধান শিক্ষক সহ বিদ্যালয়ের সকল শিক্ষক কে অনলাইন ক্লাস পরিচালনার জন্য ধন্যবাদ।

আলোচনা শেষে জুম সফটওয়ার এর মাধ্যমে অনুষ্ঠিত হয় গান, কবিতা আবৃত্তি।

Tag :

সংবাদটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন-

রাজবাড়ী সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের অনলাইন ক্লাসের দুই মাস পূর্তি উপলক্ষে আলোচনা সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান

প্রকাশের সময় : 06:30:29 pm, Friday, 10 July 2020

 

জনতার আদালত অনলাইন

রাজবাড়ীতে অনলাইন ক্লাস পরিচালনায় অনুকরণীয় দৃষ্টান্ত স্থাপন করলেন রাজবাড়ী সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক ও জেলা অ্যাম্বাসেডর প্রদ্যুত কুমার দাস।

রাজবাড়ী সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের অনলাইন ক্লাসের দুই মাস পূর্তি উপলক্ষে আলোচনা ও সাংস্কৃতিক আড্ডা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার বিকেল সাড়ে পাঁচটায় জুম সফটওয়ারের মাধ্যমে রাজবাড়ী জেলা প্রশাসন, তথ্য প্রযুক্তি বিভাগের কর্মকর্তা, শিক্ষক শিক্ষিকা, অভিভাবক ও শিক্ষার্থীরা অংশগ্রহণ করেন। করোনা সংক্রমণের ফলে শিক্ষা কার্যক্রম বন্ধ হয়ে যাওয়ায় বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের স্বতস্ফূর্ত উদ্যোগে গত ৯ মে থেকে অনলাইন ক্লাস কার্যক্রম চালু হয়।

অনলাইন আলোচনায় বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক মাহবুবা আক্তার বলেন,  স্বাস্থ্যঝুঁকির মাঝে যখন সবকিছু স্থবির ছিল। তখনই চিন্তাভাবনা চলছিল কিছু করা যায় কীনা? বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক প্রদ্যুৎ কুমার দাস উদ্যোগি হয়ে এ অনলাইন ক্লাস চালু করেন। বর্তমানে ২১ জন শিক্ষক এ অনলাইন ক্লাসে যুক্ত আছেন। নিয়মিত পাঁচটি  করে ক্লাস নেয়া হচ্ছে। এটা আমাদের বিরাট এক সফলতা।

বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক প্রদ্যুৎ কুমার দাসের সঞ্চালনায় অন্যদের মাঝে আলোচনায় অংশ নেন রাজবাড়ীর অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) সরকার আব্দুল্লাহ আল মামুন, এটুআই এর প্রোগ্রাম কো অর্ডিনেটর মো. কবির হোসেন, প্রোগ্রাম অ্যসিস্ট্যান্ড অভিজিৎ সাহা, ফরিদপুর টিচার্স ট্রেনিং কলেজের সহকারী  অধ্যাপক রোকনুজ্জামান শিকদার, সহকারী অধ্যাপক মাহিদুল ইসলাম, রাজবাড়ী সরকারি কলেজের অধ্যাপক আক্কাছ আলী, রাজবাড়ীর প্রাক্তন জেলা শিক্ষা অফিসার সৈয়দ সিদ্দিকুর রহমান, রাজধানী ঢাকার মতিঝিল গভঃ বয়েজ স্কুলের সহকারী শিক্ষক  শাহীনা কবির, মোহম্মদপুর গভঃ বয়েজ স্কুলের সহকারী শিক্ষক উম্মে হাবিবা, রাজবাড়ী সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের  সহকারী শিক্ষক আব্দুল মান্নান, কলেজ শিক্ষক শামীমা আক্তার মুনমুন, প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক শাহীন আল মাসুদ প্রমুখ।

অনলাইন ক্লাসের উদ্যোক্তা প্রদ্যুত কুমার দাস বলেন, শিক্ষার্থীদের পড়ালেখার কথা চিন্তা করে শিক্ষক হিসেবে নিজের দায়বদ্ধতার জায়গা থেকেই উদ্যোগটি গ্রহণ করেছিলাম। আমার সহকর্মীদের শ্রেনি কার্যক্রমে অংশগ্রহণ এবং প্রধান শিক্ষকের অনুপ্রেরণায় অনলাইন ক্লাস কার্য্যক্রম আজ এই জায়গায় পৌছেছে। ইতি মধ্যে আমাদের বিদ্যালয়ের ২২জন শিক্ষক রুটিন অনুযায়ি লাইভ ক্লাস নিচ্ছেন। এ পর্যন্ত আমরা বিভিন্ন বিষয়ে ২২০টি লাইভ ক্লাস নিয়েছি। শিক্ষক বাতায়নে নিবন্ধিত হওয়ায় আমাদের ক্লাসগুলো বাতায়নে আপলোড দিয়ে থাকি। আমার বিশ্বাস বাংলাদেশের আর কোন স্কুলের এত বেশি সংখ্যক শিক্ষক  অনলাইন ক্লাসের সাথে যুক্ত নাই। এটি সম্ভব হয়েছে আমার সহকর্মীদের আমার প্রতি ভালবাসা থেকে।

ফরিদপুর সরকারি  টিসার্স ট্রেনিং কলেজের সহকারী অধ্যাপক মাহিদুল ইসলাম বলেন, রাজবাড়ী সরকারি উচ্চ বিদ্রালয় অনলাইন এর যে ক্লাস গুলো আমি দেখেছি তাতে আমার কাছে মনে হয়েছে দেশের অন্যান্য অনলাইন স্কুলের ক্লাস থেকে এই ক্লাস গুলো অনেক বেশি মান সম্পন্ন।

 ফরিদপুর সরকারি  টিসার্স ট্রেনিং কলেজের সহকারী অধ্যাপক মোঃরোকনুজ্জামান শিকদার বলেন, এটি নিঃসন্দেহে একটি প্রশংসনীয় উদ্যোগ।

এটুআই প্রোগ্রাম এ্যাসিস্টেন্ট অভিজিৎ সাহা বলেন, এই মহৎ উদ্যোগকে আমরা সাধুবাদ জানাই এবং কষ্টকরে হলেও অনলাইন কার্যক্রমের এই ধারা অব্যাহত রাখতে হবে।

এটুআই এর প্রোগ্রাম কোঅর্ডিনেটর মোঃ কবীর হোসেন বলেন, পরীক্ষা হওয়া জরুরী নয়। জরুরী যেটি সেটি হচ্ছে শিক্ষার্থীদের যেভাবেই হোক শিক্ষার সাথে যুক্ত রাখা। যেটি এধরনের উদ্যমী শিক্ষকদের দারাই সম্ভব।

রাজবাড়ীর অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) আব্দুরøাহ আল মামুন বলেন, সুবিধা বঞ্চিত শিক্ষার্থীদের কাছে কিভাবে এই ক্লাস গুলোকে কিভাবে পৌছে দেওয়া যায় সে ব্যাপারে  জেলা প্রশাসন কাজ করে যাচ্ছে। প্রধান শিক্ষক সহ বিদ্যালয়ের সকল শিক্ষক কে অনলাইন ক্লাস পরিচালনার জন্য ধন্যবাদ।

আলোচনা শেষে জুম সফটওয়ার এর মাধ্যমে অনুষ্ঠিত হয় গান, কবিতা আবৃত্তি।