Dhaka ০৯:৫৯ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৪, ৪ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

পাংশায় ডোবায় ভেসে উঠলো নবজাতকের মৃতদেহ

সংবাদদাতা-
  • প্রকাশের সময় : ০৯:২৪:১৪ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৯ অগাস্ট ২০১৯
  • / ১৫২০ জন সংবাদটি পড়েছেন


জনতার আদালত অনলাইন ॥ রাজবাড়ীর পাংশা রেল স্টেশনের পাশে একটি ডোবা থেকে সোমবার সকালে অজ্ঞাত এক নবজাতকের লাশ উদ্ধার করেছে পাংশা থানার পুলিশ।
এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, পাংশা রেল স্টেশনের পূর্ব রেল লাইনের পাশে একটি ডোবায় নবজাতকের লাশ ভেসে ওঠে। লাশটি পলিথিন দিয়ে মোড়ানো ছিল। স্থানীয় লোকজন বিষয়টি পাংশা রেল স্টেশন মাস্টারকে অবগত করলে তিনি রাজবাড়ী জিআরপি থানাকে খবর দেন।
রাজবাড়ী জিআরপি থানার ওসি আকবর হোসেন জানান, লাশটি রেল লাইনের পাশে থাকলেও সেটি লাইন থেকে ১০ ফুটের বেশি দূরত্বে ছিল। তাই সেটি পাংশা থানার উদ্ধারের কথা।
পাংশা থানার ওসি মোহাম্মদ আহসানউল্লাহ জানান, লাশটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য রাজবাড়ী সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। নবজাতকের ধর্ম বর্ণ জাত কোনো কিছুই শনাক্ত করা সম্ভব হয়নি। এজন্য আঞ্জুমান মফিদুলের মাধ্যমে তাকে দাফনের ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। এব্যাপারে একটি সাধারণ ডায়েরি করা হয়েছে। নবজাতককে হত্যা করে ফেলা হয়েছে না জীবীত অবস্থায় ফেলা হয়েছে ময়নাতদন্তের রিপোর্ট পাওয়ার পর নিশ্চিত হওয়া যাবে।

Tag :

সংবাদটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন-

পাংশায় ডোবায় ভেসে উঠলো নবজাতকের মৃতদেহ

প্রকাশের সময় : ০৯:২৪:১৪ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৯ অগাস্ট ২০১৯


জনতার আদালত অনলাইন ॥ রাজবাড়ীর পাংশা রেল স্টেশনের পাশে একটি ডোবা থেকে সোমবার সকালে অজ্ঞাত এক নবজাতকের লাশ উদ্ধার করেছে পাংশা থানার পুলিশ।
এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, পাংশা রেল স্টেশনের পূর্ব রেল লাইনের পাশে একটি ডোবায় নবজাতকের লাশ ভেসে ওঠে। লাশটি পলিথিন দিয়ে মোড়ানো ছিল। স্থানীয় লোকজন বিষয়টি পাংশা রেল স্টেশন মাস্টারকে অবগত করলে তিনি রাজবাড়ী জিআরপি থানাকে খবর দেন।
রাজবাড়ী জিআরপি থানার ওসি আকবর হোসেন জানান, লাশটি রেল লাইনের পাশে থাকলেও সেটি লাইন থেকে ১০ ফুটের বেশি দূরত্বে ছিল। তাই সেটি পাংশা থানার উদ্ধারের কথা।
পাংশা থানার ওসি মোহাম্মদ আহসানউল্লাহ জানান, লাশটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য রাজবাড়ী সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। নবজাতকের ধর্ম বর্ণ জাত কোনো কিছুই শনাক্ত করা সম্ভব হয়নি। এজন্য আঞ্জুমান মফিদুলের মাধ্যমে তাকে দাফনের ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। এব্যাপারে একটি সাধারণ ডায়েরি করা হয়েছে। নবজাতককে হত্যা করে ফেলা হয়েছে না জীবীত অবস্থায় ফেলা হয়েছে ময়নাতদন্তের রিপোর্ট পাওয়ার পর নিশ্চিত হওয়া যাবে।