Dhaka 3:43 pm, Friday, 3 February 2023

রাজবাড়ীতে বৃদ্ধার চুল কর্তন ॥ মা-ছেলেকে বেধরক পিটুনি॥ গ্রেফতার ২

সংবাদদাতা-
  • প্রকাশের সময় : 06:03:55 pm, Saturday, 30 June 2018
  • / 1636 জন সংবাদটি পড়েছেন

জনতার আদালদ অনলাইন ॥ রাজবাড়ীতে এবার বৃদ্ধার চুল কর্তনের ঘটনা ঘটেছে। আবেদা বেগম (৬০) নামের ওই বৃদ্ধা ও তার ছেলে হবি দেওয়ানকে বেদম মারপিটের পর চুল কর্তনের ঘটনাটি ঘটেছে শনিবার সকালে রাজবাড়ী সদর উপজেলার খানগঞ্জ ইউনিয়নের বেলগাছি পুরান বাজার এলাকায়। মাÑছেলে দুজনেই বর্তমানে রাজবাড়ী সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। তাদের বাড়ি একই গ্রামে। এ ঘটনায় পুলিশ সাইফুল ইসলাম মুন্না ও তার ভাবি সাবিনা ইয়াসমীনকে গ্রেফতার করেছে। মুন্না একই ইউনিয়নের পার্শ্ববর্তী হরিহরপুর গ্রামের সিরাজুল ইসলামের ছেলে।
রাজবাড়ী সদর হাসপাতালের সার্জারী ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন হবি দেওয়ান জানান, তিনি মাঠে কৃষিকাজ করে জীবীকা নির্বাহ করেন। তিনি প্রায়ই মাঝরাতে তার পোষা গরুকে খাওয়ান। শুক্রবার দিবাগত রাত সাড়ে তিনটার দিকে তিনি গরুকে খাওয়াচ্ছিলেন। ওই সময় মুন্না তার ঘরে চুরি করতে ঢোকে। তিনি টের পেয়ে ঘরে গিয়ে মুন্নাকে হাতেনাতে ধরে ফেলে বেঁধে রেখে দেন। পরদিন সকাল সাতটার দিকে মুন্নার বাড়ির লোকেরা মুন্নাকে ছাড়িয়ে নিয়ে যায়। এর কিছু পরেই ওরা ২০/২৫ জন নারী পুরুষ একজোট হয়ে তাদের বাড়িতে হামলা চালিয়ে তাকে ও তার মাকে লাঠি দিয়ে পিটিয়ে গুরুতর আহত করে। একপর্যায়ে হামলাকারীদের মধ্যে এক নারী তার মায়ের চুল কেটে দেয়।
চিকিৎসাধীন আবেদা বেগম কান্নাজড়িত কণ্ঠে বলেন, আমার মাজা পর্যন্ত চুল ছিল। ওরা আমার শখের চুল কেটে নিয়ে গেল। এরপর লাঠি দিয়ে সাপের মতো পিটিয়েছে আমাকে।
রাজবাড়ী সদর থানা হেফাজতে থাকা অভিযুক্ত মুন্না জানান, তিনি রাতে নামাজের পর হাঁটাহাটি করছিলেন। ওই সময় আচমকা তাকে মারধর করে বেঁধে রাখে। পরে সকালে তার পরিবারের লোকেরা হবিদের বাড়িতে গিয়ে মারধর করে। তবে চুল কাটার বিষয়টি তিনি জানেন না বলে জানান।
রাজবাড়ী সদর হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা ডা. আলী আহসান তুহিন জানান, দুজনের শরীরেই জখমের চিহ্ন রয়েছে। আবেদা বেগম নামে ওই নারীর চুল কাটার বিষয়টি হাসপাতালের রিপোর্টে উল্লেখ রয়েছে।
রাজবাড়ী সদর থানার ওসি (তদন্ত) আব্দুল্লাহ আল তায়েবীর জানান, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। ভুক্তভোগীরা চুরি করতে ঢোকার যে অভিযোগ করেছে সেটি সত্য নাও হতে পারে। তবে হামলা, মারধর এবং বৃদ্ধার চুল কাটার ঘটনাটি সত্য। পুলিশ দুজনকে গ্রেফতার করেছে। ঘটনার সাথে জড়িত অন্যদেরকেও গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে। এব্যাপারে মামলার প্রস্তুতি চলছে।

Tag :

সংবাদটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন-

রাজবাড়ীতে বৃদ্ধার চুল কর্তন ॥ মা-ছেলেকে বেধরক পিটুনি॥ গ্রেফতার ২

প্রকাশের সময় : 06:03:55 pm, Saturday, 30 June 2018

জনতার আদালদ অনলাইন ॥ রাজবাড়ীতে এবার বৃদ্ধার চুল কর্তনের ঘটনা ঘটেছে। আবেদা বেগম (৬০) নামের ওই বৃদ্ধা ও তার ছেলে হবি দেওয়ানকে বেদম মারপিটের পর চুল কর্তনের ঘটনাটি ঘটেছে শনিবার সকালে রাজবাড়ী সদর উপজেলার খানগঞ্জ ইউনিয়নের বেলগাছি পুরান বাজার এলাকায়। মাÑছেলে দুজনেই বর্তমানে রাজবাড়ী সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। তাদের বাড়ি একই গ্রামে। এ ঘটনায় পুলিশ সাইফুল ইসলাম মুন্না ও তার ভাবি সাবিনা ইয়াসমীনকে গ্রেফতার করেছে। মুন্না একই ইউনিয়নের পার্শ্ববর্তী হরিহরপুর গ্রামের সিরাজুল ইসলামের ছেলে।
রাজবাড়ী সদর হাসপাতালের সার্জারী ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন হবি দেওয়ান জানান, তিনি মাঠে কৃষিকাজ করে জীবীকা নির্বাহ করেন। তিনি প্রায়ই মাঝরাতে তার পোষা গরুকে খাওয়ান। শুক্রবার দিবাগত রাত সাড়ে তিনটার দিকে তিনি গরুকে খাওয়াচ্ছিলেন। ওই সময় মুন্না তার ঘরে চুরি করতে ঢোকে। তিনি টের পেয়ে ঘরে গিয়ে মুন্নাকে হাতেনাতে ধরে ফেলে বেঁধে রেখে দেন। পরদিন সকাল সাতটার দিকে মুন্নার বাড়ির লোকেরা মুন্নাকে ছাড়িয়ে নিয়ে যায়। এর কিছু পরেই ওরা ২০/২৫ জন নারী পুরুষ একজোট হয়ে তাদের বাড়িতে হামলা চালিয়ে তাকে ও তার মাকে লাঠি দিয়ে পিটিয়ে গুরুতর আহত করে। একপর্যায়ে হামলাকারীদের মধ্যে এক নারী তার মায়ের চুল কেটে দেয়।
চিকিৎসাধীন আবেদা বেগম কান্নাজড়িত কণ্ঠে বলেন, আমার মাজা পর্যন্ত চুল ছিল। ওরা আমার শখের চুল কেটে নিয়ে গেল। এরপর লাঠি দিয়ে সাপের মতো পিটিয়েছে আমাকে।
রাজবাড়ী সদর থানা হেফাজতে থাকা অভিযুক্ত মুন্না জানান, তিনি রাতে নামাজের পর হাঁটাহাটি করছিলেন। ওই সময় আচমকা তাকে মারধর করে বেঁধে রাখে। পরে সকালে তার পরিবারের লোকেরা হবিদের বাড়িতে গিয়ে মারধর করে। তবে চুল কাটার বিষয়টি তিনি জানেন না বলে জানান।
রাজবাড়ী সদর হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা ডা. আলী আহসান তুহিন জানান, দুজনের শরীরেই জখমের চিহ্ন রয়েছে। আবেদা বেগম নামে ওই নারীর চুল কাটার বিষয়টি হাসপাতালের রিপোর্টে উল্লেখ রয়েছে।
রাজবাড়ী সদর থানার ওসি (তদন্ত) আব্দুল্লাহ আল তায়েবীর জানান, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। ভুক্তভোগীরা চুরি করতে ঢোকার যে অভিযোগ করেছে সেটি সত্য নাও হতে পারে। তবে হামলা, মারধর এবং বৃদ্ধার চুল কাটার ঘটনাটি সত্য। পুলিশ দুজনকে গ্রেফতার করেছে। ঘটনার সাথে জড়িত অন্যদেরকেও গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে। এব্যাপারে মামলার প্রস্তুতি চলছে।