Dhaka 1:28 am, Friday, 9 December 2022

রাজবাড়ীতে নদী ভাঙন রোধের দাবিতে বিক্ষোভ সমাবেশ

সংবাদদাতা-
  • প্রকাশের সময় : 11:31:08 am, Tuesday, 16 May 2017
  • / 1333 জন সংবাদটি পড়েছেন

স্টাফ রিপোর্টার ॥ রাজবাড়ীতে নদী ভাঙন রোধের দাবিতে রোববার সকালে বিক্ষোভ মিছিল সমাবেশ ও জেলা প্রশাসকের কাছে স্মারকলিপি দিয়েছে পদ্মা তীরবর্তী মানুষেরা।
বিগত এক দশক ধরে রাজবাড়ী সদর উপজেলার পদ্মা নদী তীরবর্তী  মিজানপুর, বরাট ও দাদশী ইউনিয়নের হাজার হাজার ঘরÑবাড়ি, বসতভিটা, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান নদীগর্ভে বিলীন হয়ে গেছে। ভাঙনের শঙ্কা নিয়ে এখনও বসবাস করছে হাজার হাজার মানুষ। যে কোনো সময় পদ্মার কড়াল গ্রাসে তাদের ভিটেমাটি হারিয়ে যেতে পারে। নদী তীরবর্তী এসব মানুষেরা নদী শাসন ও ভাঙন রোধের দাবিতে রাজবাড়ী শহরে এসে বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে রাজবাড়ী জেলা প্রশাসকের কার্যালয় গিয়ে শেষ করে। সেখানে অনুষ্ঠিত হয় সমাবেশ। সমাবেশে বক্তব্য রাখেন রাজবাড়ী জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ফকীর আব্দুল জব্বার, জেলা ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি জ্যোতিশংকর ঝন্টু, সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করিম রেজা, বরাট ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মনিরুজ্জামান সালাম, বরাট ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ফরিদ উদ্দিন প্রমুখ।
রাজবাড়ী জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ফকীর আব্দুল জব্বার বলেন, নদী ভাঙন রোধ না করা গেলে রাজবাড়ী শহর রক্ষা বাঁধও থাকবেনা। আমি জেলা পরিষদের পক্ষ থেকে নামেমাত্র এক লাখ টাকা বরাদ্দ দিয়েছি। যেটি দিয়ে স্থানীয় মানুষ উদ্বুদ্ধ হয়ে স্বেচ্ছায় বাঁধ রক্ষায় কাজ করছে।
বক্তারা বলেন, ইতিমধ্যে বহু ঘরÑবাড়ি ও ফসলি জমি নদীগর্ভে বিলীন হয়েছে। নদীর পানি বৃদ্ধি এবং বন্যাও এগিয়ে আসছে। অবিলম্বে নদী ভাঙন রোধ করা না গেলে বাঁচানো যাবেনা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসহ বহু মূল্যবান স্থাপনাকেও। তারা ভাঙন রোধে কার্যকর পদক্ষেপ না নেয়ার জন্য পানি উন্নয়ন বোর্ড কর্তৃপক্ষকে দায়ী করে বলেন, নদী তীরে অবৈধভাবে বালু উত্তোলনের ফলে ভাঙন আরও তীব্র হচ্ছে। এই বালু উত্তোলনও বন্ধ করতে হবে।
সমাবেশ শেষে রাজবাড়ী জেলা প্রশাসকের কাছে একটি স্মারকলিপি প্রদান করা হয়।

Tag :

সংবাদটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন-

রাজবাড়ীতে নদী ভাঙন রোধের দাবিতে বিক্ষোভ সমাবেশ

প্রকাশের সময় : 11:31:08 am, Tuesday, 16 May 2017

স্টাফ রিপোর্টার ॥ রাজবাড়ীতে নদী ভাঙন রোধের দাবিতে রোববার সকালে বিক্ষোভ মিছিল সমাবেশ ও জেলা প্রশাসকের কাছে স্মারকলিপি দিয়েছে পদ্মা তীরবর্তী মানুষেরা।
বিগত এক দশক ধরে রাজবাড়ী সদর উপজেলার পদ্মা নদী তীরবর্তী  মিজানপুর, বরাট ও দাদশী ইউনিয়নের হাজার হাজার ঘরÑবাড়ি, বসতভিটা, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান নদীগর্ভে বিলীন হয়ে গেছে। ভাঙনের শঙ্কা নিয়ে এখনও বসবাস করছে হাজার হাজার মানুষ। যে কোনো সময় পদ্মার কড়াল গ্রাসে তাদের ভিটেমাটি হারিয়ে যেতে পারে। নদী তীরবর্তী এসব মানুষেরা নদী শাসন ও ভাঙন রোধের দাবিতে রাজবাড়ী শহরে এসে বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে রাজবাড়ী জেলা প্রশাসকের কার্যালয় গিয়ে শেষ করে। সেখানে অনুষ্ঠিত হয় সমাবেশ। সমাবেশে বক্তব্য রাখেন রাজবাড়ী জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ফকীর আব্দুল জব্বার, জেলা ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি জ্যোতিশংকর ঝন্টু, সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করিম রেজা, বরাট ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মনিরুজ্জামান সালাম, বরাট ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ফরিদ উদ্দিন প্রমুখ।
রাজবাড়ী জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ফকীর আব্দুল জব্বার বলেন, নদী ভাঙন রোধ না করা গেলে রাজবাড়ী শহর রক্ষা বাঁধও থাকবেনা। আমি জেলা পরিষদের পক্ষ থেকে নামেমাত্র এক লাখ টাকা বরাদ্দ দিয়েছি। যেটি দিয়ে স্থানীয় মানুষ উদ্বুদ্ধ হয়ে স্বেচ্ছায় বাঁধ রক্ষায় কাজ করছে।
বক্তারা বলেন, ইতিমধ্যে বহু ঘরÑবাড়ি ও ফসলি জমি নদীগর্ভে বিলীন হয়েছে। নদীর পানি বৃদ্ধি এবং বন্যাও এগিয়ে আসছে। অবিলম্বে নদী ভাঙন রোধ করা না গেলে বাঁচানো যাবেনা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসহ বহু মূল্যবান স্থাপনাকেও। তারা ভাঙন রোধে কার্যকর পদক্ষেপ না নেয়ার জন্য পানি উন্নয়ন বোর্ড কর্তৃপক্ষকে দায়ী করে বলেন, নদী তীরে অবৈধভাবে বালু উত্তোলনের ফলে ভাঙন আরও তীব্র হচ্ছে। এই বালু উত্তোলনও বন্ধ করতে হবে।
সমাবেশ শেষে রাজবাড়ী জেলা প্রশাসকের কাছে একটি স্মারকলিপি প্রদান করা হয়।