Dhaka ০৭:৩২ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৭ মে ২০২৪, ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

২১শ ওরশ যাত্রী নিয়ে রাজবাড়ী থেকে ভারতের মেদিনীপুরে ছেড়ে গেল বিশেষ ট্রেন

সংবাদদাতা-
  • প্রকাশের সময় : ০৬:০৬:২৬ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৬ ফেব্রুয়ারী ২০১৭
  • / ১৬২৭ জন সংবাদটি পড়েছেন

স্টাফ রিপোর্টার ॥ ভারতের পশ্চিমবঙ্গের মেদিনিপুরের হযরত আব্দুল কাদের জিলানী (রাঃ) এর বংশধর হযরত আলী আব্দুল কাদের সামসুল কাদের সৈয়দ শাহ মুরশীদ আলী আল কাদরী আল হাসায়নী ওয়াল হুসায়নী Ñ আল বাগদাদী (রাঃ) এর ১১৬ তম বার্ষিক ওরশ উপলক্ষে ২১শ জন ওরশ যাত্রী নিয়ে রাজবাড়ী রেলওয়ে স্টেশন থেকে ২২ খানা বগির একটি বিশেষ ট্রেন ছেড়ে গেছে মঙ্গলবার রাত ১০টায়। রাজবাড়ীর জেলা প্রশাসক জিনাত আরা, পুলিশ সুপার সালমা পিপিএম, রাজবাড়ী আঞ্জুমান ই কাদেরিয়ার সভাপতি কাজী ইরাদত আলী রাজবাড়ী রেলস্টেশনে গিয়ে ওরশ যাত্রীদের বিদায়ী শুভেচ্ছা জানান।
রাজবাড়ী আঞ্জুমানÑইÑকাদরিয়ার উদ্যোগে প্রতি বছর এই বিশেষ ট্রেনটি পরিচালিত হয়ে থাকে। আজ বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে মসজিদ মির্জা মহল্লা মেদিনীপুরে অনুষ্ঠিত হবে ভক্তদের কাক্সিক্ষত ওরশ শরীফ। পবিত্র ওরশ শরীফ পরিচালনা করবেন রাসুল (সাঃ) এর ৩৩তম ও গাউস উল আযম বড় পীর আব্দুল কাদের জিলানী (আঃ) এর ২০তম অধস্তন আওলাদপাক জিল্লে ইলাহী বেলায়েত রবি গাউসে জামান কেবলা কাদেরিয়া তরীকার সাজ্জাদানশীন বড় হুজুর হযরত সৈয়দ শাহ রশিদ  আলী আল কাদেরি আল হাসানী ওয়াল হুসাইনী আল বাগদাদী আল মেদিনীপুরী।
রাজবাড়ী আঞ্জুমানÑইÑকাদিরয়া সূত্র জানিয়েছে, শুধুমাত্র ওরশ যাত্রীদের জন্য বাংলাদেশ সরকার ও ভারতের পশ্চিম বাংলা রেলওয়ে ১৯০২ সাল থেকে প্রতি বছর যৌথভাবে এই ট্রেনটি পরিচালনা করে আসছে। রাজবাড়ী ছাড়াও দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে এই বিশেষ ট্রেনে মেদিনীপুরের ওরশ যায় ভক্তরা। মঙ্গলবার রাত ১০টায় ট্রেনটি রাজবাড়ী স্টেশন থেকে ছেড়ে যাবার পর রাত ২ টার দিকে চুয়াডাঙ্গার দর্শণা রেলস্টেশনে গিয়ে পৌছায়। বুধবার সকালে দর্শণা চেকপোস্টে আইনী কার্যক্রম শেষে একই ট্রেনে ওরশ যাত্রীরা পুনরায় মেদিনীপুরে যাত্রা করে। আজ বৃহস্পতিববার সকাল ৯টার দিকে মেদিনীপুর রেলস্টেশনে ট্রেনটি পৌছানোর কথা রয়েছে। মেদিনীপুর শহরে মির্জা মহল্লা মসজিদ প্রাঙ্গন ও দায়ারাপাকে সুফি সাধক হযরত সৈয়দ শাহ মুরশেদ আলী আল কাদরীর ১১৬ তম বার্ষিক ওরশ অনুষ্ঠিত হবে বৃহস্পতিবার রাতে। ওরশ শেষ করে ট্রেনটি শুক্রবার রাত ১০টায় মেদিনীপুর থেকে রাজবাড়ীর উদ্দেশ্যে রওনা হবে। রাজবাড়ী ফিরে আসবে আগামি শনিবার। এদিকে একই দিন রাজবাড়ী আঞ্জুমানÑইÑকাদেরিয়ার উদ্যোগে রাজবাড়ী খানকা শরীফ বড় মসজিদেও অনুষ্ঠিত হবে ওরশ শরীফ।
১৯০১ সালের ১৭ ফেব্রুয়ারি বেসাল শরীফের তিরোধান পর থেকেই প্রত্যেক বছর এই পবিত্র ওরশ পালিত হয়ে আসছে বলে জানা গেছে। মেদিনীপুরের ওরশে বিভিন্ন দেশের কয়েক লাখ ভক্ত শরীক হয়।

Tag :

সংবাদটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন-

২১শ ওরশ যাত্রী নিয়ে রাজবাড়ী থেকে ভারতের মেদিনীপুরে ছেড়ে গেল বিশেষ ট্রেন

প্রকাশের সময় : ০৬:০৬:২৬ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৬ ফেব্রুয়ারী ২০১৭

স্টাফ রিপোর্টার ॥ ভারতের পশ্চিমবঙ্গের মেদিনিপুরের হযরত আব্দুল কাদের জিলানী (রাঃ) এর বংশধর হযরত আলী আব্দুল কাদের সামসুল কাদের সৈয়দ শাহ মুরশীদ আলী আল কাদরী আল হাসায়নী ওয়াল হুসায়নী Ñ আল বাগদাদী (রাঃ) এর ১১৬ তম বার্ষিক ওরশ উপলক্ষে ২১শ জন ওরশ যাত্রী নিয়ে রাজবাড়ী রেলওয়ে স্টেশন থেকে ২২ খানা বগির একটি বিশেষ ট্রেন ছেড়ে গেছে মঙ্গলবার রাত ১০টায়। রাজবাড়ীর জেলা প্রশাসক জিনাত আরা, পুলিশ সুপার সালমা পিপিএম, রাজবাড়ী আঞ্জুমান ই কাদেরিয়ার সভাপতি কাজী ইরাদত আলী রাজবাড়ী রেলস্টেশনে গিয়ে ওরশ যাত্রীদের বিদায়ী শুভেচ্ছা জানান।
রাজবাড়ী আঞ্জুমানÑইÑকাদরিয়ার উদ্যোগে প্রতি বছর এই বিশেষ ট্রেনটি পরিচালিত হয়ে থাকে। আজ বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে মসজিদ মির্জা মহল্লা মেদিনীপুরে অনুষ্ঠিত হবে ভক্তদের কাক্সিক্ষত ওরশ শরীফ। পবিত্র ওরশ শরীফ পরিচালনা করবেন রাসুল (সাঃ) এর ৩৩তম ও গাউস উল আযম বড় পীর আব্দুল কাদের জিলানী (আঃ) এর ২০তম অধস্তন আওলাদপাক জিল্লে ইলাহী বেলায়েত রবি গাউসে জামান কেবলা কাদেরিয়া তরীকার সাজ্জাদানশীন বড় হুজুর হযরত সৈয়দ শাহ রশিদ  আলী আল কাদেরি আল হাসানী ওয়াল হুসাইনী আল বাগদাদী আল মেদিনীপুরী।
রাজবাড়ী আঞ্জুমানÑইÑকাদিরয়া সূত্র জানিয়েছে, শুধুমাত্র ওরশ যাত্রীদের জন্য বাংলাদেশ সরকার ও ভারতের পশ্চিম বাংলা রেলওয়ে ১৯০২ সাল থেকে প্রতি বছর যৌথভাবে এই ট্রেনটি পরিচালনা করে আসছে। রাজবাড়ী ছাড়াও দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে এই বিশেষ ট্রেনে মেদিনীপুরের ওরশ যায় ভক্তরা। মঙ্গলবার রাত ১০টায় ট্রেনটি রাজবাড়ী স্টেশন থেকে ছেড়ে যাবার পর রাত ২ টার দিকে চুয়াডাঙ্গার দর্শণা রেলস্টেশনে গিয়ে পৌছায়। বুধবার সকালে দর্শণা চেকপোস্টে আইনী কার্যক্রম শেষে একই ট্রেনে ওরশ যাত্রীরা পুনরায় মেদিনীপুরে যাত্রা করে। আজ বৃহস্পতিববার সকাল ৯টার দিকে মেদিনীপুর রেলস্টেশনে ট্রেনটি পৌছানোর কথা রয়েছে। মেদিনীপুর শহরে মির্জা মহল্লা মসজিদ প্রাঙ্গন ও দায়ারাপাকে সুফি সাধক হযরত সৈয়দ শাহ মুরশেদ আলী আল কাদরীর ১১৬ তম বার্ষিক ওরশ অনুষ্ঠিত হবে বৃহস্পতিবার রাতে। ওরশ শেষ করে ট্রেনটি শুক্রবার রাত ১০টায় মেদিনীপুর থেকে রাজবাড়ীর উদ্দেশ্যে রওনা হবে। রাজবাড়ী ফিরে আসবে আগামি শনিবার। এদিকে একই দিন রাজবাড়ী আঞ্জুমানÑইÑকাদেরিয়ার উদ্যোগে রাজবাড়ী খানকা শরীফ বড় মসজিদেও অনুষ্ঠিত হবে ওরশ শরীফ।
১৯০১ সালের ১৭ ফেব্রুয়ারি বেসাল শরীফের তিরোধান পর থেকেই প্রত্যেক বছর এই পবিত্র ওরশ পালিত হয়ে আসছে বলে জানা গেছে। মেদিনীপুরের ওরশে বিভিন্ন দেশের কয়েক লাখ ভক্ত শরীক হয়।